শুক্রবার বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সারা বিশ্বের মতো শুক্রবার বাংলাদেশেও পালন করা হবে বিশ্ব টেলযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস।

জাতিসংঘের অঙ্গ সংগঠন আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ ইউনিয়নের ১৯৩টি সদস্য রাষ্ট্রে এই দিবসটি পালন করা হবে। এবারও দিবসটির ৫০তম বার্ষিকী উদযাপন করা হবে।

এবার আইটিইউ দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে ‘তথ্য প্রযুক্তির ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মান সংরক্ষণ’ অর্থাৎ যেভাবে যে পণ্য বা সেবার মান নির্ধারণ করা হয়েছে, তা সব স্থানে যেনো একই মানে ব্যবহার করা হয়।

দিবসটি পালনে এবং প্রতিপাদ্যকে অর্থবহ করতে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং বিটিআরসি কর্তৃক বেশ কিছু আয়োজন করা হয়েছে।

ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার  শনিবার বিকেলে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এ দিবসটির মূল অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দিবসটির প্রতিপাদ্য বিষয়ে মোবাইল অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেডে পক্ষ থেকে কি-নোট উপস্থাপন করা হবে।

এছাড়া, হুয়াওয়ে, নকিয়া নেটওয়ার্ক লিমিটেড স্ট্যান্ডার্ডলাইজেশন অব ফাইভজি নিয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করবে।

ইন্টারনেট প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ প্রসপেক্ট অব আইএসপি ইন্ডাস্ট্রি ইন ফাইভজি রেজিম বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হবে।

অন্যান্য অনুষ্ঠানের মধ্যে বিসিএস (টেলিকম) সমিতি টেলিটেক জার্নালের বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করছে এবং স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের  অংশগ্রহণে অনলাইন রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।  সারাদেশে বিভিন্ন স্থানে এবং রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কের পার্শ্বে দিবসের প্রতিপাদ্য তুলে ধরে সচেতনতামূলক ফেস্টুন ও ব্যানার প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়েছে, বাংলাদেশ বেতার, বিটিভিসহ বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান প্রচার করা হচ্ছে। মোবাইলে এসএমএস প্রদান ও টিভি চ্যানেলে স্ক্রল প্রচারের মাধ্যমে জনগণকে দিবস সম্পর্কে অবহিত করা হচ্ছে।

বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক এবং আইটিইউ মহাসচিব হাওলিন ঝা প্রমুখ বাণী প্রদান করেছেন।

ইএইচ/মে১৬/২০১৯/২০৩১

*

*

আরও পড়ুন