vivo Y16 Project

শাওমি স্পোর্টস ব্লুটুথ ইয়ারফোন : সব ভালোর কালো অস্পষ্ট সাউন্ড

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রযুক্তির উন্নয়নে এখন কম দামেও ভালো মানের ব্লুটুথ ইয়ারফোন পাওয়া যায়। ডিভাইসের বাজারে একটু খোঁজ নিলেই আপনার পছন্দের এয়ারফোন পেয়ে যাবেন।

স্বল্প বাজেটের তেমনি একটি এয়ারফোন হলো চীনা ব্র্যান্ড শাওমির স্পোর্টস ব্লুটুথের ইয়ুথ সংস্করণ। এটিকে বেসিক সংস্করণও বলা হচ্ছে।

কয়েকদিন ব্যবহারের বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে গ্যাজেটটির ভালো-মন্দ থাকছে এ রিভিউতে।

Techshohor Youtube

এক নজরে শাওমি স্পোর্টস ব্লুটুথ ইয়ারফোন বেসিক

  • ব্লুটুথ ৪.১ প্রযুক্তি
  • ২০-২০,০০০ হার্জ ফ্রিকুয়েন্সি রেসপন্স
  • ৯ ও’ম রেসিস্টেন্স
  • সেন্সিটিভিটি ১২৩ ডেসিবল
  • মাইক্রোফোন
  • তিনটি বাটন (ভলিউম কন্ট্রোল ও মিউজিক পরিবর্তন)
  • ১২০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

ডিজাইন

এ মডেলকে শাওমি তাদের ‘স্পোর্টস ব্লুটুথ ইয়ারফোনের’ বেসিক সংস্করণ বলছে। তাই এর ডিজাইনেও মূল মডেলের অনেকটা মিল লক্ষ্য করা যায়।

এটির ওজন মাত্র ১৩.৬ গ্রাম। একটি তারের মাধ্যমে সংযুক্ত ইয়ারফোনটি ২ কানেই ব্যবহার করা যাবে।

এতে তিনটি কন্ট্রোল বাটন রয়েছে, যেগুলো দিয়ে গান চালু-বন্ধ ও পরিবর্তনের পাশাপাশি ভলিউম নিয়ন্ত্রণও করা যাবে। এছাড়া ফোন স্পর্শ ব্যতিরেখেই সরাসরি ইয়ারফোনের বাটন দিয়ে কল রিসিভ করা যাবে।

এছাড়া চার্জিংয়ের জন্য রয়েছে একটি ইউএসবি ২.০ টাইপ পোর্ট।

ব্যাটারি লাইফ

এই ইয়ারফোনটিতে ১২০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে, যা ফুল চার্জ হতে প্রায় ২ ঘণ্টার মত সময় লাগে। শাওমির দাবি, একবার ফুল চার্জ করলে মিডিয়াম ভলিউম এ এটি প্রায় ১১ ঘণ্টার মত ব্যাক-আপ দিতে সক্ষম। তবে বাস্তব ব্যবহারের অভিজ্ঞতায় প্রায় ৫ থেকে ৭ ঘণ্টার ব্যাকআপ পাওয়া গেছে, যা সন্তোষজনক।

পারফরমেন্স

ব্লুটুথ ৪.১ প্রযুক্তি থাকার কারণে কানেকশন ল্যাগ খুব কম এবং প্রায় ১০ মিটার দূর পর্যন্ত সংযোগ পাওয়া যায় ।

কম থেকে মাঝারি ভলিউম পর্যন্ত ইয়ারফোন বেস, মিড, ট্রেবলের ভালো সমন্বয় করতে পারে। তবে একদম উচ্চ ভলিউমে কিছুটা সমস্যা পাওয়া যায়।

ইয়ারফোনে ব্যবহৃত মাইক্রোফোনের মান বেশ ভালো, এটি দিয়ে ভয়েস কলে কথা বলা কিংবা রেকর্ড করা যাবে।

এটি মোবাইল কিংবা ল্যাপটপ উভয়ের সঙ্গে ব্যবহার উপযোগী।

আইপিএক্স-৪ প্রযুক্তি

শাওমি এই ইয়ারফোনে আইপিএক্স-৪ প্রযুক্তি ব্যবহার করেছে, যা এর অধিকতর সুরক্ষা নিশ্চিত করে। এটি ধুলাবালি ও হালকা মানের পানির ঝাপটা প্রতিরোধে সক্ষম। তবে পানির ঝাপটা কার্যকরী প্রতিরোধের জন্য চার্জিং পোর্টের অংশটি বন্ধ রাখতে হবে।

মূল্য

শাওমি অফিসিয়ালি দেশে গ্যাজেটটি বিক্রি না করলেও ভিন্ন চ্যানেলে প্রায় এক হাজার ৫০০ থেকে এক হাজার ৭০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে।

এক নজরে ভালো

দাম অনুযায়ী সন্তোষজনক পারফরমেন্স

ভালো ব্যাটারি লাইফ

ওজনে হালকা

এক নজরে খারাপ

উচ্চ ভলিউমে সাউন্ড ক্লিয়ার নয়

ম্যাগনেট না থাকা

আরএ/ইএইচ/ মে ৩০/ ২০১৯/

*

*

আরও পড়ুন

vivo Y16 Project