STE 2019 (summer) in news page

টেলিনর-আজিয়াটা একীভূতকরণে বাইরে থাকছে রবি

Laptop fair 2019 (in page)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : টেলিনর ও আজিয়াটার সম্ভাব্য একীভূতকরণের বাইরে থাকছে রবি।

সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রবি জানায়, টেলিনর-আজিয়াটা একটি যৌথ মালিকানাধীন কোম্পানি গঠনের মাধ্যমে তাদের ব্যবসায়িক কার্যক্রম একীভূত করার যে আলোচনা শুরু করছে সেখানে রবি কোনো অংশ হবে না।

‘একীভূতকরণ সফলভাবে সম্পন্ন হলেও রবি আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদের অধীন একটি আলাদা ও স্বতন্ত্র কোম্পানি হিসেবেই পরিচালিত হবে। এর অর্থ হলো এশিয়ার এ সম্ভাব্য বৃহৎ একীভূতকরণে বাংলাদেশের মোবাইল টেলিকম মার্কেটে কোনো সরাসরি প্রভাব ফেলবে না’ উল্লেখ করা হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে। 

রবিতে আজিয়াটার ৬৮ দশমিক ৭ শতাংশ, ভারতের ভারতী এয়ারটেলের ২৫ শতাংশ এবং জাপানের এনটিটি ডোকোমোর ৬ দশমিক ৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

টেলিনর-অজিয়াটা একীভূত হলে টেলিনরের হাতে থাকবে ৫৬ দশমিক ৫ শতাংশ শেয়ার। আজিয়াটার দখলে থাকবে ৪৩ দশমিক ৫ শতাংশ শেয়ার। এই চুক্তি সম্পন্ন হতে পারে বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে।

এদিকে টেলিনরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দেখা যায়, কোম্পানি দুটি একীভূত হলে এশিয়ার ৯ টি দেশের টেলিকম ব্যবসা তাদের দখলে চলে যাবে।

টেলিনর এশিয়ায় তাদের ব্যবসা পরিচালনা করছে থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও মিয়ানমারে। আজিয়াটার দখলে আছে মালয়েশিয়া, বাংলাদেশ, কম্বোডিয়া, নেপাল, শ্রীলংকা ও ইন্দোনেশিয়ার টেলিকম ব্যবসা। এই ৯ দেশে তাদের মোট গ্রাহক আছে ৩০০ মিলিয়ন (৩০ কোটি)।

সেখানেও বলা হয়েছে, চুক্তি সম্পন্ন হওয়ার পরও বাংলাদেশে রবি আজিয়াটা স্বাধীনভাবে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করবে। 

যৌথ মালিকানার কোম্পানিটির হেড কোয়ার্টার স্থাপন করা হবে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে। একীভূত হলে তারা একসঙ্গে ৬০ হাজার মোবাইল টাওয়ার পরিচালনা করবে।

এডি/মে০৬/২০১৯/১৯৩০

আরও পড়ুন – 

টেলিনর-আজিয়াটা একীভূত হচ্ছে!

ডেটার আধিপত্যে রবি এখন আরও শক্তিশালী

*

*

আরও পড়ুন