ইন্টারনেটে ইউটার্ন

Robi Before feture image

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মার্চে নতুন করে অন্তত ১০ লাখ ৪১ হাজার গ্রাহক যুক্ত হওয়ায় ইন্টারনেট গ্রাহকে ইউটার্ন নিয়েছে টেলিকম খাত।

দেশে এখন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে  ৯ কোটি ৩১ লাখ দুই হাজারে। যা যেকোন সময়ের চেয়ে বেশি।

দেশে গত বছরের শেষের দুই মাসে টানা পতন হয় ইন্টারনেট গ্রাহকের। নভেম্বর ও ডিসেম্বরে ইন্টারনেট গ্রাহক আশ্চর্যজনকভাবে কমে যায় অন্তত ১১ লাখ ১৮ হাজার গ্রাহক।

তবে চলতি বছরের শুরু থেকে ধীরে ধীরে আবার ফিরতে থাকে ইন্টারনেট গ্রাহক। আর মার্চে এসে নতুন করে ১০ লাখ ৪১ হাজার গ্রাহক যুক্ত হলে আবারও প্রবৃদ্ধি আসে খাতটিতে।

টানা দুই বছর বাড়ার পর আশ্চর্যজনকভাবে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী কমে যাবার পর আবার এমন উল্লম্ফনে অবশ্য নেতৃত্ব দিচ্ছে মোবাইল অপারেটররা।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের হিসাব বলছে, মার্চের শেষে দেশে মোট ইন্টারনেট গ্রাহক রয়েছে ৯ কোটি ৩১ লাখ দুই হাজার। এর মধ্যে মোবাইল ইন্টারনেট গ্রাহক ৮ কোটি ৭৩ লাখ ১০ হাজার।

অন্যদিকে ওয়াইম্যাক্স ব্যবহারকারী ৬১ হাজার, আইএসপি ও পিএসটিএন মিলিয়ে ৫৭ লাখ ৩১ হাজার।

বিটিআরসি বলছে, গত নভেম্বরে দেশে মোট ইন্টারনেট গ্রাহক ছিল ৯ কোটি ১৮ লাখ ১৮ হাজার। কিন্তু সেটা তার আগের মাসে ছিল ৯ কোটি ২৪ লাখ ৬৬ হাজার। যা ডিসেম্বরের শেষে দাঁড়ায় ৯ কোটি ১৩ লাখ ৩৮ হাজারে।

দেশে মোবাইল নম্বর অপরিবর্তিত রেখে অপারেটর বদলের সেবা বা এমএনপি চালু হওয়ার কারণে অক্টোবরে কিছু গ্রাহক একাধিক নম্বর থেকে একটা নম্বরে স্থির হয়। ফলে কিছু সংযোগ কমেছিল।

আবার ওই একই সময়ে বিটিআরসি অপারেটরদের অফার নম্বর কমিয়ে আনতে কড়াকড়ি করে। ফলে তখন অনেকে ইন্টারনেটের প্রতি অনাগ্রহী হয় বলে অপারেটরদের মত।

সেসব বাধা পেরিয়ে চলতি বছরের শুরু থেকেই ধীরে ধীরে ইন্টারনেট গ্রহেক বাড়তে শুরু করে। যা মার্চে এসে অনেকটা বিস্ফোরণের মতো বেড়ে গেছে।

ইএইচ/এপ্রিল২৩/২০১৯/১৪৫০

*

*

আরও পড়ুন