Techno Header Top and Before feature image

নুসরাতের জন্য শোক ফেইসবুকে

nusrat-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নুসরাত জাহান রাফি আর পৃথিবীতে নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তবে চলে যাওয়ার আগে বারুদ জ্বালিয়ে দিয়েছে পুরো দেশে। তাই ফেইসবুকের হোমপেইজ স্ক্রল করতেই বোঝা যাচ্ছে কতোটা নাড়া দিয়ে গেছে তার প্রতিবাদী সত্তা।

সবারই এখন এক দাবি, বিচার চাই নুসরাতের হত্যাকারীদের।

এই দাবিতে শামিল হয়েছেন তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকও। তিনি লেখেন, সারা শরীরে তীব্র ব্যথা নিয়ে মেয়েটি বলেছিল ‘আমি এই অন্যায়ের প্রতিবাদ করেই যাবো। আমার জীবন থাকতে যে অন্যায় মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল আমার সঙ্গে করেছেন, জীবন থাকতে সে অন্যায়ের সঙ্গে আপোষ করবো না’।

৮০ ভাগ পুড়ে যাওয়া শরীর নিয়েই সাহসের সঙ্গে মেয়েটি বলেছে ‘আমি সারা বাংলাদেশের কাছে বলবো, সারা পৃথিবীর কাছে বলবো এই অন্যায়ের প্রতিবাদ করার জন্য। আমি এই অন্যায়ের প্রতিবাদ করবো।

অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে করতে তীব্র ব্যথা নিয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নিলো মেয়েটি।

পলক তার টাইমলাইনে নুসরাতের একটি ছবিও দেন। সেখানে লেখা, শোকাহত। নুসরাত জাহান রাফি আমাদের ক্ষমা করো।

উপস্থাপক, মোটিভেশনাল স্পিকার ও ইন্টারনেট ব্যবসায়ী ইকবাল বাহার লেখেন, ভালই হয়েছে নুসরাত, এই ভয়াবহ হিংস্র ও বর্বরতার দৃশ্য তোমাকে আর কষ্ট দেবে না।

নুসরাত কোনদিন কাউকে ক্ষমা করো না, আমাদেরকেও না কারণ আমরা কালকেই তোমাকে ভুলে যাবো তারপর আরেকটি নুসরাতের এরচেয়েও ভয়ানক কোন মৃত্যু ঘটবে। আমরা সবাই অপরাধী!

বুকের ভিতরে অনেক কষ্ট হচ্ছে… অনেক কষ্ট! আহা জীবন!

বেসরকারি চাকরিজীবী লিনা পারভিন লেখেন, নুসরাত নিভে গেছে কিন্তু তার গায়ের আগুন যেন ছড়িয়ে পড়ে গোটা বাংলায়। ছাঁই হয়ে যাক সব। হয় ফাঁসি নয় ছাঁই।

ফটোগ্রাফার আবদুল মান্নান দীপ্ত লেখেন, অগ্নিদগ্ধ নুসরাত মরে নাই!! মরেছে এই জাতির বিবেক।

শ্লীলতাহানীর প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন নুসরাত। ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার নামে মামলা করেছিলেন থানায়। এ নিয়ে হুমকিও দেওয়া হচ্ছিল তাকে। গত শনিবার মাদ্রাসার চার শিক্ষার্থী তাকে ধরে হাত বেঁধে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে যায় নুসরাতের।

শেষ পর্যন্ত অন্যায়ের সঙ্গে আপোষ না করা মেয়েটি মৃত্যু শয্যায় বলে যায়, আমি তাকে শাস্তি দেবো। যে আমায় কষ্ট দিয়েছে। আমি তাকে এমন শাস্তি দেবো যে তাকে দেখে অন্যরা শিক্ষা নেবে। আমি তাকে কঠিন থেকে কঠিনতম শাস্তি দেবো। ইনশাআল্লাহ।

এজেড/ এপ্রিল ১১/ ২০১৯/ ১১২০

*

*

আরও পড়ুন