কোরিয়ায় প্রথম ফাইভজি চালু, ২ ঘণ্টার জন্য ব্যর্থ যুক্তরাষ্ট্র

5g-Skorea-Techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে ফাইভজি চালু করেছে দক্ষিণ কোরিয়া।

গতকাল বুধবার স্থানীয় সময় রাত ১১টায় দেশটিতে পঞ্চম প্রজন্মের এই ইন্টারনেট সেবা চালু করা হয়।

‘বিশ্বের প্রথম’ ফাইভজি চালুর তকমাটি নিজেরে করে রাখতে চায় বলে দক্ষিণ কোরিয়া ঘোষিত সময়ের দুই দিন আগেই তা চালু করলো। দেশটির দেওয়া ঘোষণা অনুযায়ী, আগামীকাল শুক্রবার ফাইভজি চালুর কথা ছিল।

দেশটির তিন টেলিকম অপারেটর এসকে টেলিকম, কেটি টেলিকম এবং এলজি ইউপ্লাস ফাইভজি নেটওয়ার্ক চালু করেছে। বুধবার রাতে চালু করা ওই নেটওয়ার্ক মোবাইল ইন্টারনেট হিসেবেও এখন ব্যবহার করা যাচ্ছে বলে জানায় অপারেটরগুলো।

তবে মাত্র দুই ঘণ্টার জন্য সেই প্রথম হওয়ার তকমাটি নিতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। ইয়ানহাপ সংবাদ সংস্থার বরাতে জানা যাচ্ছে, দক্ষিণ কোরিয়া ঘোষিত সময়ের আগে ফাইভজি চালু করায় মাত্র দু’ঘণ্টার জন্য প্রথম হতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতেও বুধবার রাতেই ফাইভজি চালু করেছে। দেশটির শিকাগো এবং মিনিয়াপলিস অঞ্চলে তা চালু করে দেশটির মোবাইল ক্যারিয়ার ভেরিজন।

দীর্ঘদিন থেকেই ফাইভজি প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছিল দক্ষিণ কোরিয়া। তাদের প্রযুক্তিগত দক্ষতা নিয়েও রয়েছে খুব সুনাম। তারা ফাইভজি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে নিজেদের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আরও বাড়াতে চায়। সেজন্য জোরেশোরেই কাজ করেছে ফাইভজি নিয়ে।

ইয়ানহাপ সংবাদ সংস্থা জানাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের মোবাইল ক্যারিয়ার ভেরিজন দক্ষিণ কোরিয়ার আগেই ফাইভজি চালু করতে চেয়েছিল। তাই তাদের সম্ভাব্য সময়ের এক সপ্তাহ আগেই গতকাল রাতেই চালু করে। কিন্তু সেটা আর কোরিয়ার আগে করতে পারেনি।

বৃহস্পতিবার দেশটির সবচেয়ে বড় মোবাইল অপারেটর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, বুধবার রাত ১১টায় দেশটির ছয়জন বিভিন্ন অঙ্গনের বিখ্যাত তারকা ফাইভজি উন্মোচন করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশটির তারকাদের মধ্যে কে-পপ ব্যান্ড ইএক্সও এবং অলিম্পিকে বরফে স্কেটিং করা হিরো কিম উ-না বিশ্বে প্রথম ফাইভজি ফোন দিয়ে এই নেটওয়ার্কে ব্রাউজ করেন।

এসকে টেলিকমের সঙ্গে দেশটির অন্য দুটি টেলিকম কেটি এবং এলজি ইউপ্লাস একই সমেয় ফাইভজি চালু করে।

তবে সাধারণ গ্রাহকরা শুক্রবার থেকে দেশটিতে ফাইভজি ব্যবহার করতে পারবেন। সেদিনই স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক দেশটিতে ফাইভজি স্মার্টফোন গ্যালাক্সি ১০এস উন্মোচন করবে।

যুক্তরাষ্ট্রে ফাইভজি চালু করলেও সেটি সাধারণরা এখনি ব্যবহার করতে পারছেন না। দেশটির সবচেয়ে বড় টেলিকম অপারেটর এটি অ্যান্ড টি এই নেটওয়ার্ক চালু করেছে।

খাতটির বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ফাইভজি চালুর মাধ্যমে এখন গ্রাহকরা ফোরজির চেয়ে ২০ গুন বেশি ক্ষমতায় ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

ইএইচ/এপ্রি০৪/২০১৯/১৬০৫ 

আরও পড়ুন – 

২০২১ সালের বিজয় দিবসে দেশে ফাইভজি : জব্বার 

দেশে হুয়াওয়ের ফোল্ডেবল ফাইভজি ফোন 

*

*

আরও পড়ুন