আইপিটিভিতে আপত্তি তথ্য মন্ত্রণালয়ের

IPTV-techshohor
Robi Before feture image

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারদের ইন্টারনেট টিভি বা আইপিটিভি’র অনুমোদন দেওয়া নিয়ে আপত্তি তুলেছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় গত সপ্তাহে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) এখতিয়ার নিয়েও প্রশ্ন করেছে।

জানা গেছে, কেবল টিভি অপারেটরগুলোর দাবির প্রেক্ষিতে তথ্য মন্ত্রণালয় আইপি টিভির বিষয়ে আপত্তি জানায়।

এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পরে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারকেও বিষয়টি জানিয়েছে।

আইপি টিভির বিষয়টি হঠাৎ জোরেশোরে সামনে চলে আসায় গত শনিবার সরকারি ছুটির দিনেও এর সুরাহা করতে বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠক করেন।

বিটিআরসি তথ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত অক্টোবর মাসে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টার উপস্থিতিতে ‌’ডমেস্টিক নেটওয়ার্ক কর্ডিনেশন কমিটি’র এক বৈঠকে আইপি টিভির অনুমোদনের ক্ষমতা কমিশনকে দেওয়া হয়। এর প্রেক্ষিতেই আবেদন আহবান করা হয়।

আগ্রহীদের আবেদনের পর বিটিআরসি বেশ কয়েকটি আইএসপিকে অনুমোদন দেওয়া হয়। এগুলো এখন সেবা চালুর অপেক্ষায় আছে।

চলতি এপ্রিল মাসে কয়েকটি কোম্পানি আইপিটিভি ও ভিডিও অন ডিমান্ড সেবা চালু করার প্রক্রিয়া প্রায় শেষ করেছে বলে জানা গেছে। এতে দেশের বিনোদন খাতে একটা বড় ধরনের পরিবর্তন আসবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

এতে অনলাইনে টেলিভিশন দেখার দর্শক বাড়বে বলে তারা ধারণা করছেন। আগামী দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে দেশে অন্তত পাঁচ লাখ আইপিটিভির দর্শক হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিস্টরা।

এর আগে দেশে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আইপিটিভি চালু করে।পরীক্ষামূলকভাবেও অনেকে বিভিন্ন অনুষ্ঠান সম্প্রচার করে।

২০১৬ সালের অক্টোবরে বিটিআরসি দেশে আইপিটিভি ও ভিডিও অন ডিমান্ড সেবা দুটি বন্ধ করে দেয়। দুই বছরের বেশি সময় বন্ধ থাকার পর গত বছর ডিসেম্বরে সেবা দুটি আবার উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

সেই ধারাবাহিকতায় প্রায় ডজনখানেক কোম্পানি আইপিটিভি চালুর অনুমোদন নিয়ে সেবা চালু করতে যাচ্ছে।

জেডএ/আরআর/এপ্রিল ০৪/১৪৫২

আরও পড়ুন –

আইপি টিভি চালু করলো বিডিকম 

আসছে ছয় আইপি টিভি 

আইপিটিভি-ভিডিও অন ডিমান্ড উন্মুক্ত 

*

*

আরও পড়ুন