বেসিস সফটএক্সপোয় কোথায়, কখন, কী আয়োজন

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রাত পোহালেই বসছে তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষ করে সফটওয়্যার খাতের সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী বেসিস সফটএক্সপো আয়োজন।

১৫তম বারের মতো এই আয়োজন হবে রাজধানীর কুড়িলের আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা বা আইসিসিবি-তে।

মঙ্গলবার থেকে তিন দিনের আয়োজন চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। সেখানে কয়েকটি ভেন্যুতে থাকছে এবারের আয়োজন। দেখে নিতে পারেন কোথায়, কখন, কী আয়োজন থাকছে এক্সপোতে।

প্রথম দিন

প্রথম দিনের আয়োজন শুরু হবে মূলত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে। এদিন সকাল ১০টায় প্রধান অতিথি থেকে এক্সপোর উদ্বোধন করবেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। হল-১ এ এই মেগা ইভেন্টিটি চলবে বেলা ১২টা পর্যন্ত।

বেলা ৩-৫টায় হল-১ এ থাকবে, কিভাবে স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশগুলোতে বাংলাদেশের সফটওয়্যার বাজার তৈরি করা সম্ভব? নিয়ে আলোচনা।

হল-১ ডিজিটালাইজড ভূমি অধিদপ্তর-প্রশাসনিক চ্যালেঞ্জসমূহ ও করণীয় নিয়ে গোলটেবিল বৈঠক।

সেমিনার হলে থাকবে বাংলা যান্ত্রিক অনুবাদক, ‘টেন্ট : আইওটি লঞ্চিং’।

এরপর বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে সাড়ে সাতটার সেশনে হল-১ এ স্মার্ট সল্যুশন, স্মার্ট এগ্রিকালচার নিয়ে আয়োজন।

একই হলে ফিনটেক হাব, ডিজিটাল পেমেন্ট অ্যান্ড ব্লকচেইন নিয়ে গোলটেবিল বৈঠক।

সেমিনার হলে সে সময় হবে শিক্ষা এবং দক্ষতা : চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা।

একই সময়ে টেন্টে থাকবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ডিজিটাল প্লাটফর্মের ভূমিকা ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে আয়োজন।

বিকেল ৪টা থেকে ৬টা লঞ্চ প্যাড : ডেভকন ২০১৯ নামের মেগা ইভেন্ট। একই স্থানে সাড়ে পাঁচটা থেকে থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

২য় দিন বুধবার

সকাল ১০ থেকে ১২টা সময়ে হল-১ এ স্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি খাতভিত্তিক রাজস্ব সঞ্চালন ব্যবস্থা বৃদ্ধির লক্ষ্যে করনীয় বিষয়ে গোলটেবিল। একই হলে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের আরোপিত বর্তমান মূসক ব্যবস্থা এবং করণীয় নিয়ে আরেকটি গোলটেবিল বৈঠক।

সেমিনার হলে সেসময় থাকবে ডেটা সুরক্ষা পরিবর্তনশীল আন্তর্জাতিক আইন নিয়ে আলোচনা।

বেলা ৩টা থেকে ৫টায় হল-১ এ থাকবে শিক্ষার্থীদের জন্য আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প নিয়ে মেগা ইভেন্ট।

একই সময়ে সেমিনার হলে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে জাপানের সঙ্গে বাণিজ্য সম্ভাবনা এবং বাংলাদেশে জাপান ডেস্কের উদ্বোধন।

বিকেল ৪টা থেকে ৬টায় লঞ্চ প্যাডে থাকবে উদ্যোক্তার পথচলা নিয়ে মেগা ইভেন্ট।

বিকেল সাড়ে পাঁচটা থেকে সাড়ে সাতটায় লঞ্চ প্যাডে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এছাড়াও দ্বিতীয় দিন জাপানের সঙ্গে ক্যারিয়ার গঠনে টেন্টে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান থাকছে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত।

তৃতীয় ও শেষ দিন

শেষ দিনে সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত হল-১ এ ফাইভজি : নতুন যুগের সূচনা নিয়ে আলোচনা।

একই হলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ডিজিটালাইজেশন এবং এডুকেশনাল সফটওয়্যারের ব্যবহার নিয়ে গোলটেবিল বৈঠক।

সেমিনার হলে রপ্তানি কৌশল এবং স্থানীয় বাজারের প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে।

শেষ দিন বেলা তিনটা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত হল-১ এ ম্যানেজড সার্ভিসেস : টেকসই ই-সরকার নিয়ে আয়োজন থাকবে।

সেমিনার হলে ইন্ডাস্ট্রি ৪.০: উৎপাদন নির্ভর খাতের সম্ভাবনাসমূহ গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

বিকেল সাড়ে চারটা থেকে ছয়টা পর্যন্ত হল-১ এ বিজনেস লিডারশিপ মিট নামের মেগা ইভেন্ট থাকবে।

এছাড়াও সকাল সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত টেন্টে থাকবে ভূপৃষ্ঠ পর্যবেক্ষণে নতুন দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আয়োজন।

আর আয়োজনের পর্দা নামবে সন্ধ্যা সাতটায় শুরু হওয়া সমাপনী ও পুরষ্কার বিতরণীর মধ্য দিয়ে।

এছাড়াও প্রদর্শনী এলাকাকে ভাগ করা হয়েছে ১০টি জোনে। এগুলো পণ্য ও সেবার ভিন্নতায় ভাগ করা হয়েছে। সেখানে থাকছে সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবা প্রদর্শনী জোন, ভ্যাট জোন, এক্সপেরিয়েন্স জোন, ডিজিটাল কমার্স জোন, উইমেন জোন, ইন্ডাস্ট্রি ৪.০ জোন, উদ্ভাবনী মোবাইল সেবা জোন, ডিজিটাল শিক্ষা জোন, ফিনটেক জোন এবং আইটিইএস-বিপিও জোন।

ইএইচ/মার্চ১৮/২০১৯/১৮৩০

*

*

আরও পড়ুন