Header Top

দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারে পুরুষের চেয়ে নারী পিছিয়ে ৫৮%

smartpthone-techshohor-internet
ফাইল ছবি
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশের বয়োপ্রাপ্ত নারীদের মধ্যে মাত্র ১৩ শতাংশ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। তবে মোবাইল ফোন ব্যবহারের হার ৫৮ শতাংশ।

সম্প্রতি মোবাইল ফোন অপারেটরদের বৈশ্বিক সংগঠন জিএসএমএ তিন মহাদেশের ১৮ দেশের ২০ হাজার মানুষের ওপর পরিচালিত এক জরিপে এই তথ্য দিয়েছে।

নারীরা অনেক পিছিয়ে থাকলেও বাংলাদেশের বয়োপ্রাপ্ত পুরুষদের মধ্যে ৮৬ শতাংশ মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে আর সেখানে ইন্টারনেট ব্যবহারের হার ৩০ শতাংশ।

প্রতিবেদন অনুসারে, বাংলাদেশে নারী ও পুরুষের ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে ব্যবধান ৫৮ শতাংশ। আবার মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে দেশের পুরুষদের চেয়ে নারীরা ৩৩ শতাংশ পিছিয়ে।

মোবাইল ফোন এবং ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে নারী পুরুষের মধ্যে এই যে বৈষম্য সেই বিবেচনায় তিন মহাদেশের ওই নির্বাচিত ১৮ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ আছে ১৭তম স্থানে। বাংলাদেশের পেছনে আছে কেবল পাকিস্তান।
পাকিস্তানে মোবাইল ফোন ব্যবহারে নারীরা পুরুষদের তুলনায় ৩৭ শতাংশ পিছিয়ে থাকলেও ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে এই ব্যবধান ৭১ শতাংশ।

বাংলাদেশ-পাকিস্তানের নারীদের মোবাইল ফোন বা ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে যখন এই করুণ চিত্র তখন অনেক পরে শুরু করে মিয়ানমার অনেকটাই এগিয়ে।

দেশটিতে ৭৪ শতাংশ নারী মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে এবং তারা পুরুষদের তুলনায় মাত্র ১৫ শতাংশ পিছিয়ে। অন্যদিকে ইন্টারনেট ব্যবহারে পুরুষরা ৫৭ শতাংশ আর নারীদের মধ্যে ৩৫ শতাংশ ইন্টারনেট ব্যবহার করে।

জরিপে অন্তর্ভূক্ত হওয়া এশিয়ার অন্য তিন দেশ, ভারত, চীন এবং ইন্দোনেশিয়ার অবস্থা ভালো।

তবে আফ্রিকার দেশগুলোতে নারী-পুরুষ প্রায় সমানে সমান হলেও ল্যাতিন আমেরিকায় আবার নারীরা সামান্য ব্যবধানে এগিয়ে। সেখানে মেক্সিকোকে মোবাইল ফোন এবং ইন্টারনেট ব্যবহারে নারী ও পুরুষের অবস্থান সমানে সমান।

অন্যদিকে ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনায় দুই ক্ষেত্রেই নারীরা এগিয়ে। আর্জেন্টিনায় যেখানে ৮৮ শতাংশ নারী মোবাইল ফোন ব্যবহার করে সেখানে পুরুষদের মোবাইল ব্যবহারের হার ৮৭ শতাংশ। আর ইন্টারনেট ব্যবহারে পুরুষরা ৮০ শতাংশ এবং নারীরা ৮১ শতাংশ।

ব্রাজিলে ৮৬ শতাংশ নারী যেখানে মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে, সেখানে পুরুষরা করছে ৮৪ শতাংশ। একইভাবে নারীদের মধ্যে ইন্টারনেট ব্যবহারের হার যেখানে ৭০ শতাংশ সেখানে পুরুষদের মধ্যে এই হার ৬৯ শতাংশ।

জেডএ/ইএইচ/২০১৯/১৯১২/১৯৪৪

*

*

আরও পড়ুন