স্পর্শহীন ডিভাইস কাজ করবে যেভাবে

touchless-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রশ্ন উঠেছে টাচলেস প্রযুক্তি আসছে না কেন? এর জবাব দিতে কাজ করছে গুগলসহ কয়েকটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। বিভিন্ন প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে চলছে বিভিন্ন ধরনের কাজ।

২০০৭ সালে আইফোনের মাধ্যমে মানুষ স্মার্টফোন জগতে ঢোকে। এরপর টাচ স্ক্রিনের একটি বিল্পব ঘটে যায়। ক্রমাগতভাবে সবকিছু টাচস্ক্রিন হতে থাকে। এক দশকেরও বেশি সময় চলছে একই প্রযুক্তিতে। এতটা সময় পার হলেও এখনও সেই টাচ স্ক্রিনেই রয়ে গেছে ইনপুট পদ্ধতি।

তাই নতুন কিছুর খোঁজে নেমে পড়েছেন প্রযুক্তি গবেষকরা। তারা স্পর্শ বিহীন স্মার্টফোনের জন্য কাজ করছেন বলে জানা গেছে।

গুগলের প্রজেক্ট সলি সম্পর্কে অনেকেরই অজানা থাকতে পারে। রাডার প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ডিভাইসের সঙ্গে মানুষের সম্পর্ককে পুরোপুরি স্পর্শহীন করতে কাজ করছে তারা।

লেখা সহ সবধরনের কাজকে স্পর্শহীন করতেই এই প্রযুক্তি। গুগলের এই প্রকল্প সফল হলে কেবল আঙ্গুলের সঙ্গে আঙ্গুলের ঘষাতেই আপনি স্ক্রল করতে পারবেন, লিখতে পারবেন।

এই প্রযুক্তিতে পুরো একটি রাডারকে ছোট আকারে ডিভাইসের মধ্যে জুড়ে দেওয়া হয়। রাডার থেকে সিগন্যাল বের হয়ে আঙ্গুলের গতিকে পর্যবেক্ষণ করে এবং সে অনুযায়ী কাজ করে।

এই প্রযুক্তিকেই আরেক ধাপ এগিয়ে নিচ্ছে সেন্ট অ্যান্ড্রুস কম্পিউটার হিউম্যান ইন্টারেকশন রিসার্চ গ্রুপ। তারা ইশারা প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে। এই ধরুন আপনি যে বর্ণ লিখতে চাইবেন সেটি ইশারা করবেন আর লিখা হয়ে যাবে।

এ ধরনের প্রযুক্তির উন্নয়নের ওপর অগম্যান্টেড রিয়্যালিটিভিত্তিক ডিভাইসগুলোর ভবিষ্যৎ অনেকটাই নির্ভর করছে।

অনেক দিন ধরে অ্যাপল গ্লাস, গুগল গ্লাস সম্পর্কে নানা জল্পনা কল্পনা শোনা যাচ্ছে। তবে ইনপুট ম্যাথডের জন্য কাজ খুব একটা এগোতে পারছে না। ধরুণ এই ধরনের গ্লাস চোখে লাগিয়ে জগিং করার সময় আপনার একটি কল আসলো। আপনি কীভাবে না থেমে ও জগিং থেকে মনোযোগ না সরিয়ে কলটি রিসিভ করতে করতে পারবেন।

অথবা, আপনি গান শুনতে শুনতে হাঁটছেন গানের সাউন্ড কমাতে বা বাড়াতে হলে আপনি কীভাবে করবেন। যদি রাডার প্রযুক্তির ইনপুট ম্যাথডের ডিভাইসে চলে আসে তাহলে কেবল দুই আঙ্গুলের ইশারাতেই কাজটি করা যাবে।

আরেকটি প্রযুক্তি নিজে চলছে সেটি হচ্ছে আল্ট্রাসাউন্ড প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তিতে এক ধরনের শ্রবনোত্তর তরঙ্গ ব্যবহার করা হয়, যা বাতাসে এক ধরনের টাচের অনুভূতি দেয়। এই ধরনের প্রযুক্তির জন্য দরকার উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কম্পিউটার।

ইলিপ্টিক ল্যাবস একটি প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে, যেটি আপনার হেডফোনকে আল্ট্রাসাউন্ড রিসিভারে পরিণত করতে পারে। হেডফোনের পাশে হাতের ইশারা করলে তোলা যাবে সেলফি বা পরিবর্তন করা যাবে গান।

এসব প্রযুক্তি এখনও পরীক্ষামূলক পর্যায়ে রয়েছে। বাস্তবিক পক্ষে স্পর্শহীন, তারহীন, অগম্যান্টেড বিশ্বে প্রবেশ করতে হলে এ ধরনের প্রযুক্তির প্রয়োজনীয়তা ব্যাপক। তাই সামনের দিনগুলোতে এসবের যে কোনও একটি বাজারে চলে আসলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

এমআর/আরআর/০৭ মার্চ/১১.৪১/২০১৯

*

*

আরও পড়ুন