আরও একটি কলিং অ্যাপের অনুমোদন দিল বিটিআরসি

call-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রথম দেশীয় কলিং অ্যাপটি ভালো করার প্রেক্ষিতে পরে চারটি অ্যাপের অনুমোদন দিয়েছিল বিটিআরসি। এবার আসছে ষষ্ঠ অ্যাপ।

সম্প্রতি এক কমিশন বৈঠকে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি আরও একটি অ্যাপভিত্তিক কলিং সার্ভিসের অনুমোদন দিয়েছে আইসিসি কমিউনিকেশন্স লিমিডেট নামের এক কোম্পানিকে।

একই সঙ্গে তারা এই সিদ্ধান্তও নিয়েছে যে আবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে দেশব্যাপী সকল আইপি টেলিফোনী সেবা দেয় এমন সব কোম্পানিকেই অ্যাপভিত্তিক কলিং সেবা চালুর অনুমোদন দেবেন।

দেশে বর্তমানে আইপিটিএসপি সেবার জন্য ৪১ প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স রয়েছে।

কমিশন বলছে, আগের কোম্পানিগুলোর জন্যে যে শর্ত ছিল নতুনদের ক্ষেত্রেও ঠিক একই শর্ত প্রযোয্য হবে।

এসব অ্যাপের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় শর্তছিল কোনো বিদেশী কল সেটা ইনকামিং হোক বা আউট গোয়িং পরিচালনা করা যাবে না। তাছাড়া সেবাটি অবশ্যই বিটিআরসি লফুল ইন্টারসেপশান মেনে চলতে হবে।

তাদেরকে প্রতিটি গ্রাহকের তথ্য সংগ্রহে রাখতে হবে এবং পাঁচ কোটি টাকা ব্যাংকে জামানত রেখে সেবা পরিচালনা করতে হবে।

গত বছর ২৪ এপ্রিল প্রথম এই লাইসেন্সের অনুমোদন পায় নভোকম এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইন্টারক্লাউড লিমিটেড। বছরের শেষ দিকে এসে তারা ব্রিলিয়ান্ট অ্যাপ নামের সেবাটি চালু করে।

পরবর্তীতে আরও চারটি কোম্পানি আম্বার আইটি লিমিটেড, বিডিকম অনলাইন লিমিটেড, মেট্টোনেট বাংলাদেশ এবং লিংক থ্রি টেকনোলজি লিমিটেডের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিটিআরসি ১৩ ডিসেম্বর তাদেরকে সেবা চালু করার অনুমোদন দেয়।

এই চারটি কোম্পানিই অল্প দিনের মধ্যে তাদের সেবা বাজারে নিয়ে আসতে পারবে বলে জানা গেছে।

হোয়াটসঅ্যাপ-ভাইবারের মতো অ্যাপগুলোতে শুধু ইন্টারনেটে অ্যাপ হতে অ্যাপে কথা বলা যায়। ইন্টারনেটভিত্তিক টেলিফোন বা আইপি টেলিফোনের অ্যাপে সাধারণ মোবাইল নেটওয়ার্কে বা ল্যান্ডলাইনে কথা বলা যাবে। এ অ্যাপে ইন্টারনেট, সাধারণ মোবাইল নেটওয়ার্ক বা ল্যান্ডফোন যে কোনো মাধ্যমে কথা বলার সুবিধাও রয়েছে। আর এই আইপি ফোন হতে আইপি ফোনে কথা বলতে কোনো খরচ লাগে না।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আইপিটিএসপিগুলো আনুষ্ঠানিকভাবে অ্যাপে ভয়েস কল সেবা দিতে শুরু করলে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর আয়ে প্রভাব পড়বে।

এই সেবায় ওয়াইফাই দিয়ে কথা বলা গেলেও জিপিআরএস, থ্রিজি-ফোরজি দিয়ে কথা বলতে পারেন না। কিন্তু এখন আইপি টেলিফোনের অ্যাপে এসব কোনো সমস্যা থাকবে না এবং আইপি টেলিফোনি সেবায় এটি নতুন মাত্রা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে।

জেডআই/এডি/ফেব্রু২৪/২০১৯/১৩৫৭

*

*

আরও পড়ুন