Techno Header Top and Before feature image

দেশের তরুণরাই বিশ্ব জয় করবে  : মোস্তাফা জব্বার

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের তরুণরা তাদের মেধা দিয়ে বিশ্ব জয় করছেন বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেছেন, মেধাবী তরুণরাই বাংলাদেশের হাতিয়ার। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা তারাই প্রতিষ্ঠান করবেন। যে মেধা শুধু নির্দিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে নয় বরং সারা দেশেই রয়েছে।

নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জে বিজয়ী দলকে অভিনন্দন জানিয়ে মোস্তাফা জব্বার বলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দল অলিক বিশ্বের দুই হাজারের বেশি প্রকল্পকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এটা আমাদের অর্জন। এটা হয়েছে তরুণদের মেধা দিয়েই।

রোববার রাজধানীতে হুয়াওয়ে সিডস ফর ফিউচার নামের এক আয়োজনের পঞ্চম আসরের উদ্বোধনী আয়োজনে এসব কথা বলেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, দেশে এখন মোবাইল ফোন তৈরি হচ্ছে, যেখানে দেশের তরুণরা কাজ করে চমক দেখিয়েছে। এমনকী তরুণরাই সজীব ওয়াজেদ স্যাটেলাইট গ্রাউন্ড স্টেশন থেকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নিয়ন্ত্রণের সক্ষমতা অর্জন করেছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, আমরা দেশে প্রথম ফাইভজি পরীক্ষা চালিয়েছি হুয়াওয়ের সঙ্গে মিলে। ২০২১ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে দেশ ফাইভজির যুগে প্রবেশ করবে।

ফাইভজির সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত বিদ্যমান প্রযুক্তিগুলো পৃথিবীকে বদলে দেবে। তরুণ সমাজকে ফাইভজি প্রযুক্তির উপযোগী করে গড়ে তোলার মাধ্যমে ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবে নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশ।

অনুষ্ঠানে হুয়াওয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা ঝাং জেংজুন সিডস ফর দি ফিউচার প্রতিযোগিতার বিস্তারিত পরিকল্পনা তুলে ধরেন।

এ বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্যবিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এবারের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে। যেখান থেকে দশ শিক্ষার্থী বাছাই করে তাদের প্রশিক্ষণসহ অন্যান্য সুবিধা দেবে হুয়াওয়ে। যা চলবে আগামী দুই মাসব্যাপী।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ২০০৮ সাল থেকে সিডস ফর দি ফিউচার প্রতিযোগিতা শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বের ১০৮টি দেশে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। এতে বিশ্বব্যাপী ৩৫০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৩০ হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছেন।

ইএইচ/ফেব্রু ১৭/২০১৯/১৯০০

*

*

আরও পড়ুন