মোবাইল ফোনের ধাক্কায় ক্যামেরা বাজার ছাড়া

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বখ্যাত ক্যামেরা নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ক্যাননের প্রধান নির্বাহী গত সপ্তাহেই বলেছিলেন, ক্যামেরার বিক্রি অর্ধেক কমে গেছে।

তবে সেই বিক্রি যে গত ৯ বছরে কমে গেছে ৮৪ শতাংশ তা ওই প্রধান নির্বাহী বলার এক সপ্তাহ পরেই জানা গেল।

এক সময় এসএলআর আর পরের দিকে জনপ্রিয় হওয়া ডিএসএলআর ক্যামেরার চাহিদা ছিল তুঙ্গে। ২০০৭ ও ২০০৮ সালের দিকে যখন বিশ্বে ধীরে ধীরে স্মার্টফোন ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে তখন এসএলআর ক্যামেরার চাহিদা বাড়তে থাকে। এর পর সবচেয়ে বেশি ক্যামেরার চাহিদা ছিল ২০১০ সালে।

বাজারে ক্যামেরা সরবরাহকারীদের সংগঠন সিআইপিএ’র সদস্যরা ২০১০ সালে বিশ্বব্যাপী ক্যামেরা সরবরাহ করেছিল ১২ কোটি ১৫ লাখ। সেটাই ছিল বিশ্বেবাজারে সবচেয়ে বেশি ক্যামেরা বিক্রির বছর।

ঠিক একই সময়ে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় হতে থাকে স্মার্টফোন। উন্নত হতে থাকে স্মার্টফোনের ক্যামেরা। অপরপ্রান্তে কমতে শুরু করে ক্যামেরার বাজার। ২০১১ সালে স্মার্টফোনের বাজার বাড়ে, কিন্তু কমে যায় ক্যামেরার বাজার। সে বছর বিশ্বব্যাপী বিক্রি হয় ১১ কোটি ৫৫ লাখ ক্যামেরা। এর পরের বছরগুলো যেন ক্যামেরার বাজার ধ্বসের।

২০১০ সালের পর আর কখনো ক্যামেরার বাজার বাড়েনি। এ সময়গুলোতে বেড়েছে স্মার্টফোনের বাজার। উন্নত হয়েছে স্মার্টফোনের ক্যামেরা। আর এখন তো স্মার্টফোন প্রতিষ্ঠানগুলোর মূল লক্ষ্য থাকে ভালো ক্যামরা। যার জন্য অনেকেই ফোনের নামই দিয়ে থাকে ক্যামেরা ফোন।

বাজারে আইফোন, হুয়াওয়ে, স্যামসাং, নকিয়া, ওয়ানপ্লাস, অপ্পো তাদের স্মার্টফোন ক্যামেরার জন্য নামকরা প্রতিষ্ঠান। নতুন যে প্রতিষ্ঠানগুলো স্মার্টফোন আনছে তাদেরও অন্যতম লক্ষ্য থাকছে ক্যামেরা। যা এখন ডুয়েল, ট্রিপল, কোয়াড, পাঁচটি পর্যন্ত ক্যামেরা রাখছে শুধু পিছনেই।

স্মার্টফোন ক্যামেরায় যখন এতো গুরুত্ব দিয়েছে কোম্পানিগুলো, আর দাম যখন সবার নাগালের মধ্যে এসেছে তখন অনেকটা বাজারছাড়া হতে চলেছে ক্যামেরা। সিআইপিএ’র হিসাবে ২০১৮ সালের এসে বিশ্বব্যাপী ক্যামেরা বিক্রির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে মাত্র এক কোটি ৯৪ লাখে।

ইএইচ/ফেব্রু১৫/২০১৯/১২০০

*

*

আরও পড়ুন