ই-কমার্সে নেট নিরপেক্ষতা মানতে হবে মোবাইল অপারেটরগুলোকে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের ই-কমার্স খাতে মোবাইল ফোন অপারেটরদের নেট নিরপেক্ষতা মানতে হবে। 

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডিটিও সেল হতে গত সপ্তাহে (৩১ জানুয়ারি) গেজেট আকারে প্রকাশিত ‘জাতীয় ডিজিটাল কমার্স নীতিমালা-২০১৮’-এ বিষয়ে বলা হয়েছে। 

এই ডিজিটাল কমার্স নীতিমালার আইনি কাঠামোয় বলা হয়েছে, মোবাইল অপারেটর কর্তৃক নেট নিরপেক্ষতা বজায় রাখার বিধি-বিধান প্রতিপালন করতে হবে। 

উদ্যোক্তা, ক্রেতা  ও বিক্রেতার স্বার্থ সংরক্ষণে নীতিগত ও আইগত ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্দেশ্যে এটি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং বিটিআরসিকে বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। 

নীতিমালায় নেট নিউট্রালিটি বা নেট নিরপেক্ষতা বলতে এমন একটি নীতিকে বলা হয়েছে, যার মাধ্যমে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার বা আইএসপিরা ইন্টারনেটের সকল তথ্য বা ডেটাকে সমানভাবে বিবেচনা করবে এবং ব্যবহারকারী, কনটেন্ট, ওয়েবসাইট, প্লাটফর্ম বা অ্যাপ্লিকেশনের ধরণের ভিত্তিতে আলাদা কোনো চার্জ করবে না।  

এই নীতিমালার তৈরির কার্যক্রমে যুক্ত ছিলেন মোবাইল অপারেটরগুলোর সংগঠন অ্যামটবের সাবেক মহাসচিব এবং প্রধান নির্বাহী টিআইএম নূরুল কবীর।

 তিনি টেকশহরডটকমকে বলেন, ই-কমার্স খাতে নেট নিরেপক্ষতার বিষয়টি নিয়ে অনেক আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে এবং রয়েছে। শুধু নীতিমালা করলে তো হবে না, এটি বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে বসে একটা গ্রহণযোগ্য সামাধান করতে হবে। 

বাংলাদেশে উদীয়মান ই-কমার্স ব্যবসা এসএমইদের বড় সুবিধা। এই এসএমইদের সুবিধা দেয়ার জন্যই সরকার নেট নিরপেক্ষতার কথা ভেবেছে। এ ক্ষেত্রে সবারই সহযোগিতা করা উচিত বলে মনে করেন এই টেলিকম খাত বিশেষজ্ঞ।  

আজকের ডিলের প্রতিষ্ঠাতা এবং বেসিস পরিচালক ফাহিম মাসরুর টেকশহরডটকমকে বলেন, ই-কমার্স উদ্যোক্তাদের জন্য নেট নিউট্রালিটি বড় বিষয় ছিল। কারণ দেশে টেলিকম কোম্পানিগুলোর নেটওয়ার্কেই ৯০ শতাংশ মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে। এখন টেলিকম কোম্পানিগুলো যদি ই-কমার্সে আসে, তাহলে তাদের এই নেটওয়ার্কে অন্যদের ই-কমার্সের অ্যাকসসে অ্যাফেক্ট পড়তে পারে।

নীতিমালা অনুযায়ী এখন এটি বাস্তবায়ন করতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নীতিমালায় নেট নিউট্রালিটির শর্তটি থাকলেও সেখানে টেলিকম কোম্পানিগুলোর বাধ্যবাধকতার বিষয়টি স্পষ্ট নেই। যেমন তারা ই-কমার্স ব্যবসা করতে পারবে কিনা ? করলে কীভাবে কোন নিয়ম-নীতির মধ্যে করবে? ইত্যাদি বিষয়গুলোর ব্যাখ্যার দরকার রয়েছে বলে মনে হয়।   

বিশ্ব তথ্যকোষ উইকিপিডিয়ার মতে, নেট নিউট্রালিটি হলো এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার এবং সরকার কর্তৃক পরিচালিত ইন্টারনেট ব্যবস্থায় সবধরনের তথ্য-উপাত্ত একই হবে। ব্যবহারকারীদের এর জন্য প্রদেয় চার্জে কোনো পার্থক্য থাকবে না, কোনো বৈষম্য থাকবে না, এর আধেয়, ওয়েবসাইট, প্লাটফর্ম, অ্যাপ্লিকেশন, এর অন্তর্ভুক্ত সব ইকুইপমেন্ট এবং যোগাযোগের মডেল হবে একই।

টেলিকম কোম্পানিগুলোর ই-কমার্সে ব্যবসা সম্প্রসারণ দেখে দু’বছর আগে হতেই এই নেট নিউট্রালিটি বাস্তবয়নে দেশীয় ই-কমার্স উদ্যোক্তারা দাবি জানিয়ে আসছিলেন। 

এডি/ফেব্রু৯/২০১৯/২১০০ 

*

*

আরও পড়ুন