ডেটা-ভয়েস প্যাকেজের মেয়াদ সর্বনিম্ন তিন দিন

Mobile-operator-Techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডেটা হোক বা ভয়েস যে কোনো অফার ও প্যাকেজের মেয়াদ এখন থেকে তিন দিনের কম হবে না।

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো বর্তমানে কয়েক ঘণ্টা থেকে শুরু করে মাসব্যাপী অফার দেয়। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ডেটা বা ভয়েসের মিনিট শেষ না হলে তা বাতিল হয়ে যায়।

বিভিন্ন প্যাকেজ বা অফার গ্রাহকবান্ধব করতে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোকে এমন একটি নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

মোবাইল ফোন অপারেটরদের দেওয়া নির্দেশনাটি আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর করতে বলেছে বিটিআরসি। কার্যকরের পর এক মাস বিষয়টি পর্যালোচনা করবে কমিশন। তারপর সেই বিষয়ে পরবর্তী নির্দেশনা দেবার কথাও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে বিটিআরসি।

এর আগে এমন ডেটা, ভয়েসের অফার মেয়াদ সর্বনিম্ন সাত দিন করতে মোবাইল অপারেটরদের নির্দেশনা দেয় বিটিআরসি। কিন্তু পরে সেটি স্থগিত করে কমিশন।

একই সঙ্গে কোনো অফারের মেয়াদ ৩০ দিনেরও বেশি হতে পারবে না বলেও আগের নির্দেশনায় উল্লেখ করেছে কমিশন।

এছাড়াও ওই নির্দেশনায় বলা হয়েছিল অপারেটরের প্যাকেজ বা অফারের সংখ্যা সব মিলে ৩৫টির বেশিও হতে পারবে না। কিন্তু নতুন নির্দশনায় সেটি কত হবে তার কোন উল্লেখ না করে কমিশন পরে সেটি নির্ধারণ করে জানানোর কথা বলেছে।

বর্তমানে অফারের এমন সংখ্যা অপারেটর ভেদে ৮০ থেকে ২০০ পর্যন্ত রয়েছে।

নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোন প্যাকেজ বা ডেটার মেয়াদ শেষ হবার পর সেটিতে ‘পে অ্যাজ ইউ গো’র মাধ্যমে গ্রাহক সর্বোচ্চ পাঁচ টাকার ডেটা ব্যবহারের সুযোগ পাবেন। আর সেটি শেষ হয়ে গেলে কোন প্যাকেজ কেনা ছাড়া ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন না গ্রাহকরা।

এর বাইরে অফার বা প্যাকেজের অটো-রিনিউয়াল সুবিধা রাখা হয়েছে। ফলে কোনো একটি অফারের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর স্বয়ংক্রিয়ভাবেই তা নবায়ন হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে ব্যালেন্স থাকতে হবে এবং গ্রাহক যদি সেটি বন্ধ করে না দেন।

আর যদি গ্রাহক এটি  বন্ধ করে দেন তবে সে ক্ষেত্রে তিনি ‘পে অ্যাজ ইউ গো’ সুবিধায় পাঁচ টাকা পর্যন্ত তা ব্যবহার করতে পারবেন।

এই দুটি নির্দেশনা আজ রোববার থেকেই কার্যকর হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিটিআরসির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) জাকির হোসেন।

ডেটা বা ভয়েস প্যাকেজের মেয়াদ এবং প্যাকেজ সংখ্যা নির্ধারণের বিষয়ে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের বিশেষ আগ্রহ ছিল। এর আগে বিভিন্ন সময় তিনি বলেছেন, প্যাকেজ ও অফার বেশি হওয়ায় অনেক ক্ষেত্রেই গ্রাহকরা বিভ্রান্তির মধ্যে পড়েন। তাছাড়া নানা সময় বিভ্রান্তির কারণে প্রতারণারও শিকার হতে হয়েছে তাদের।

ইএইচ/ জানু২৭/২০১৯/১৭৪০

আরো পড়ুন ঃ-

ডিজিটাল অপরাধ ঠেকাবে আইএমইআই ডেটাবেইজ

বাংলালিংকে ডেটা খেয়ে ফেলছে ভয়েস!

ডেটা বিনিময়ের সুবিধা আনলো রবি

*

*

আরও পড়ুন