জমজমাট বেচাকেনায় শেষ টেকশহর স্মার্টফোন ও ট‍্যাব মেলা

Expo-techshohor1
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মেলার তিন দিনই স্মার্ট ডিভাইস কেনার জন্য আগ্রহী ক্রেতা দর্শনার্থী ভিড় করেছেন টেকশহর ডটকম স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায়।

বৃহস্পতিবার শুরুর দিন তো ভিড় আর বেচাকেনা ছিলোই, পরের দিন শুক্রবার তা মাত্রা ছাড়ায়। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) ঢোকার বাইরের ফটক থেকে লাইন পড়ে যায় মেলা পর্যন্ত। মেলায় যখন ‘তিল ঠাঁই আর নাহিরে’ অবস্থা তখন বাধ্য হয়েই আয়োজক প্রতিষ্ঠান এক্সপো মেকারের স্বেচ্ছাসেবীরা কিছুটা সময় দর্শনার্থীদের মেলাস্থলে ঢোকা থেকে বিরত রাখেন।

সেই আগ্রহী দর্শনার্থী আর ক্রেতার দেখা শনিবারও ছিল স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায়। সকাল থেকেই মেলায় বেচাকেনা ছিল তুঙ্গে। বিকেলে তা আরও বেশি হয়। সন্ধ্যা পেরিয়ে রাত হলেও ক্রেতা দর্শনার্থীরা যেন নড়তে নারাজ। পছন্দের ব্র্যান্ডের স্টল থেকে নতুন ডিভাইস কিনেই ফিরছেন অনেকে।

মেলা শুরু আগেই অনেক ব্র্যান্ড তাদের অফার, উপহার, মূল্যছাড় ঘোষণা করেছিল যা মেলা শুরু সঙ্গে সঙ্গে ক্রেতারা পেয়েছেন।

সেই ক্রেতাদের অভাবনীয় সাড়া দেখে মেলাতে অংশগ্রহণকারী ব্র্যান্ডগুলো শেষ দিনের শেষ সময়ে আরও বেশি ছাড় ও অফার দিয়েছে। মেলার প্রথম দুইদিন আশানুরূপ বেচাকেনায় খুশি অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। শেষদিনের বেচাকেনাতেও তারা খুশি। মেলায় আশা দর্শনার্থী-ক্রেতারা বাজারমূল্যের চেয়ে কমদামে অত্যাধুনিক মুঠোফোন পেয়ে স্বাচ্ছন্দে বাড়ি ফিরছেন ক্রেতারা।

এর আগে, আজ সকাল থেকেই স্মার্টফোন স্টলগুলো ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় দেখা যায়। ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, হুয়াওয়ে, স্যামসাং, টেকনো, ভিভো, উই, মটোরোলা, নকিয়া, আইফোনসহ প্রদর্শনীতে আসা ব্র্যান্ডগুলোতে আগ্রহ দেখা গেছে অনেকের। শেষদিনে অনেক স্টল তাদের উপহারের তালিকা আরও বড় করেছে।

মেলায় মোবাইল কিনতে আসা এক ক্রেতা জানান, তিনি তার বাজেট যা তার চেয়ে কম দামে মোবাইল কিনেছেন। তাই মনে করছে এ রকম মেলার আয়োজন করার প্রয়োজন আছে।

কাদের কুদ্দুস নামে এক ক্রেতা বলেন, মোবাইলের পাশাপাশি বিভিন্ন এক্সেসরিজও কিনেছি। আর মোবাইল কিনতে গিয়ে দেখেছি বেশ কিছু মোবাইল। সেখান থেকে বেছে একটি কিনেছি। আমার কাছে স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা খুব ভালো লেগেছে। মেলাতে আকর্ষণীয় অনেক কিছুই আছে।

মেলার প্রবেশ মুখে টিকেট কিনতে আসা শিক্ষার্থী নাসের শাহ বলেন, টিকিট কিনে এই ধরনের মেলাতে যাবার কষ্ঠ আমার কাছে কিছু মনে হয় না। কারণ দীর্ঘ লাইন থাকলেও মেলার ভেতরে দেখা ও কেনার অনেক কিছুই আছে। তাই লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কিনছি।

এবারের মেলায় বিশ্বখ্যাত সব ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট পাওয়া গেছে। অংশ নিয়েছিল হুয়াওয়ে, স্যামসাং, টেকনো, ভিভো, উই, গোল্ডেনফিল্ড, মটোরোলা, নকিয়া, আইফোন, ইউসিসি, আইটেল, ইনফিনিক্স, ইউমিডিজি, ডিটেল, বিজয় এবং ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান প্রিয়শপ ডটকমসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ড ও প্রতিষ্ঠান।

স্মার্টফোন ও ট্যাব নিয়ে এবারের আয়োজন ছিল এগারোতম। দেশে অনুষ্ঠান ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান এক্সপো মেকার এই মেলার আয়োজন করে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার প্রথম দিন বিকেলে আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধান অতিথি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলার উদ্বোধন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

মেলার সমন্বয়ক সিরাজুল ইসলাম টেকশহরডটকমকে বলেন, আগের যেকোন মেলার চেয়ে এবারের মেলা ছিল বেশি জমজমাট। ক্রেতারা যেমন কম দামে ডিভাইস কিনতে পেরেছে, তেমনি উপহার পেয়েও খুশি হয়েছে। আমরা চাই ক্রেতারা দর্শনার্থীরা তাদের পছন্দের পণ্যটি দেখে, বেছে কমদামে কিনুক। তাদের জন্যই এই আয়োজন।

এবারের মেলার প্লাটিনাম স্পন্সর ছিল হুয়াওয়ে, স্যামসাং ও টেকনো। সিলভার স্পন্সর গোল্ডেনফিল্ড ও মটোরোলা। গোল্ড স্পন্সর ভিভো ও উই। টাইটেল স্পন্সর দেশের আইসিটি ও টেলিকম বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকম এবং সহযোগী ছিল এডুমেকার।

টিএ/ইএইচ/জানু ১২/২০১৯/২১৩৫

*

*

আরও পড়ুন