Techno Header Top and Before feature image

উইয়ের মোবাইল কারখানা চালু মার্চে, রপ্তানি চার দেশে

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : চলতি বছরের মার্চে নিজেদের মোবাইল কারখানা চালু করছে দেশীয় ব্র্যান্ড উই।

আর দেশের উৎপাদিত এই হ্যান্ডসেট স্থানীয় বাজারে সরবরাহের পাশাপাশি কাতার, দুবাই, শ্রীলংকা ও মিয়ানমারে রপ্তানি করা হবে।

উইয়ের এই কারখানা করা হয়েছে রাজধানীর মিরপুরে। এছাড়া কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে আরও একটি কারখানা করতে যাচ্ছে তারা। সেখানে আমরা হোল্ডিংস ইতোমধ্যে সাড়ে তিন একর জায়গা বরাদ্দ নিয়েছে।

শুরুতে তিনটি প্রডাকশন লাইনে মাসে দেড় লাখ ইউনিট হ্যান্ডসেট উৎপাদন হবে। কয়েকমাস পরে যুক্ত হবে আরও তিনটি ইউনিট।

উই স্মার্ট সল্যুউশনের ডিজিএম অ্যান্ড হেড অব মার্কেটিং মুনতাসির আহমেদ টেকশহরডটকমকে জানান, ফ্রেবুয়ারিতে মিরপুরের কারখানায় পরীক্ষামূলকভাবে উৎপাদনে যাচ্ছেন তারা। মার্চে শুরু হবে পুরোদমে।

‘চারটি দেশের রপ্তানির বিষয়ে ইতোমধ্যে প্রক্রিয়াগত কার্যক্রম সেরে ফেলা হয়েছে। দেশগুলোর স্থানীয় মোবাইল ফোন অপারেটদের সঙ্গে যৌথভাবে উই মোবাইল বাজারজাত হবে’ বলছিলেন মুনতাসির।

দেশে মোবাইল ফোন কারখানা স্থাপনের কাজ ২০১৮ আগস্ট হতেই শুরু করেছিল উইয়ের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আমরা কোম্পানিজ।লক্ষ্য ছিল ওই বছরেই নভেম্বরের মধ্যেই কোম্পানটি উৎপাদন শুরু করবে। কিন্তু নানা কারণে তখন তা করতে পারেনি তারা।

২০১৭ সালের শেষ দিকে আরেক দেশীয় কোম্পানি ওয়ালটন সর্বপ্রথম দেশে হ্যান্ডসেট কারখানা স্থাপন করে। তাদের কারখানা গাজীপুরে।

২০১৮ সালের শুরুর দিকে গাজীপুরে মোবাইল কারখানা স্থাপন শুরু করে চীনের ট্রানশান হোল্ডিংস। ট্রানশানের টেকনো ও আইটেল দুটি ব্র্যান্ডেরই এখানে উৎপাদন শুরু হয়। বছরটির মাঝামাঝি সময়ে স্থানীয়ভাবে সংযোজিত হ্যান্ডসেট তারা বাজারে ছাড়ে।

বছরের মে মাসে বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড স্যামসাং হ্যান্ডসেট করখানা স্থাপন শেষ করে সংযাজনে যায়। ঢাকার অদূরে নরসিংদীতে তাদের কারখানা।

সেপ্টেম্বরে সাভারের আশুলিয়ায় কারখানা উদ্বোধন করে দেশীয় কোম্পানি সিম্ফোনি। এই কারখানা ৫৭ হাজার বর্গফুট জায়গায়।কোম্পানিটি আরও একটি মোবাইল কারখানা করার উদ্যোগ নিয়েছে । এজন্য বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে ৫ দশমিক ১৬ একর জমি বরাদ্দ নিযেছে সিম্ফনি মোবাইলের মূল প্রতিষ্ঠান এডিসন গ্রুপ।

অক্টোবরে কারখানা উদ্বোধন করে দেশীয় কোম্পানি আল-আমিন ব্রাদার্স। ‘ফাইভ স্টার মোবাইল’ ব্র্যান্ডের হ্যান্ডসেট সংযোজন করবে তারা। গাজীপুরের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশেই ছয়দানায় অন্তত ২০ হাজার বর্গফুট জায়গায় কারখানাটি স্থাপন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানট প্রথমাবস্থায় ফিচার ফোন সংযোজন করছে।

এডি/জানু৮/২০১৯/১৮২৯

আরো পড়ুন ঃ-

কারখানায় কারা, কীভাবে তৈরি করছেন সিম্ফোনির স্মার্টফোন?

ওয়ালটনের কারখানা দেখলেন বিক্রেতারা

শাওমিকে দারুণভাবে নিয়েছে বাংলাদেশের মানুষ

দেশে মোবাইল কারখানা করতে হুয়াওয়ের আবেদন

*

*

আরও পড়ুন