স্মার্টফোনের যত ট্রেন্ড

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ২০১৮ সাল স্মার্টফোনের জন্য ছিল নাটকীয় বছর।

প্রসেসর থেকে শুরু করে স্মার্টফোনের ডিজাইনেও এসেছে বড় ধরনের পরিবর্তন।

জেনে নেওয়া যাক কী ছিল বিদায়ী বছরে স্মার্টফোনের ট্রেন্ড।

নচ ডিসপ্লে

২০১৭ সালে অ‍্যাপল যখন তাদের আইফোন ১০ এ নচ ডিসপ্লে এনেছিল তখন অনেকেই তা ভালো চোখে দেখেনি। কিন্তু সেই নচ ডিসপ্লেই ছিল ২০১৮ সালের স্মার্টফোনের বাজারে সবচেয়ে বড় ট্রেন্ড। যদিও নচ ডিসপ্লের প্রথম ফোন এনেছিল অ‍্যান্ড্রয়েডের জনক অ‍্যান্ডি রুবিনের প্রতিষ্ঠান এসেনশিয়াল।

নচ ট্রেন্ডের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতি বছর বাজারে আসে গুগল পিক্সেল ৩ এক্সএল, ওয়ানপ্লাস সিক্স ও সিক্স-টি, এলজি ভি৪০ থিংককিউ, হুয়াওয়ে মেট ২০ প্রো, মটোরোলা ওয়ান, হুয়াওয়ে পি২০ প্রো, ভিভো এক্স২১, শাওমি পকো এফ১, আসুস জেনফোন ৫জেড, অপ্পো এফ৯ এবং নকিয়া ৬.১ প্লাসসহ আরও অনেক ডিভাইস। মূলত চলতি বছর স্মার্টফোনের বাজার দাপিয়েছে নচ ডিসপ্লের ফোনগুলোই।

৭ ন‍্যানোমিটার চিপসেট

প্রযুক্তি এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে চিপের আকৃতি ছোট হচ্ছে। এতদিন নানা পরীক্ষা নিরীক্ষা করলেও চলতি বছর সেপ্টেম্বর মাসে বাজারে প্রথম দেখা মেলে ৭ ন‍্যানোমিটার চিপসেটের।

টেক জায়ান্ট অ‍্যাপল এ১২ বায়োনিক চিপের মাধ‍্যমে প্রযুক্তি দুনিয়াতে ৭ ন‍্যানোমিটার চিপের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। যদিও প্রথম এই ধরনের চিপসেট আনার ঘোষণা দিয়েছিল হুয়াওয়ে। পরবর্তীতে ৩১ অক্টোবর হুয়াওয়ে কিরিন ৯৮০ চিপসেট বাজারে আনে যা ৭ন‍্যানোমিটারের আর্কিটেকে তৈরি।

এছাড়া এএমডি ৭ ন‍্যানোমিটার চিপ নিয়ে কাজ করছে।

আশা করা যাচ্ছে আগামী বছর স্মার্টফোনগুলোতে ৭ ন‍্যানোমিটার চিপসেটের ব‍্যবহার বাড়বে।

ইনডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট

আইফোন যখন ফেইস আনলক দিয়ে ডিভাইস আনছে ফিঙ্গারপ্রিন্টের বদলে, তখন অন্যরা কাজ করছে ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর নিয়ে। মানে ফোনের চিরচেনা ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরের বদলে ফোনের ডিসপ্লের নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকবে।

সেই যাত্রায় এগিয়ে গিয়ে ইন ডিসপ্লের ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিয়ে বাজারে আসে ভিভো এক্স২১ এবং ভিভো ভি১১ প্রো।

তারপর ওয়ানপ্লাস সিক্সটি, ভিভো নেক্স, শাওমি মি ৮ এক্সপ্লোরার এডিশন, হুয়াওয়ে মেট ২০ প্রো, অপ্পো আর১৭ ফোন দেখা যায় ইনডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্টের।

ইনডিসপ্লে ক‍্যামেরা

বিশ্বের প্রথম ডিসপ্লের মধ্যেই ক্যামেরা নিয়ে হাজির হয়েছে স‍্যামসাং। প্রতিষ্ঠানটি ডিসেম্বরের উন্মোচন করে গ‍্যালাক্সি এ৮এস সেখানে ব‍্যবহার করা হয়েছে ইন ডিসপ্লে ক‍্যামেরা।

ফোনটির ডিসপ্লে বাম পাশে রয়েছে ক‍্যামেরা। সেটার অবস্থান ডিসপ্লের নিচে। ধারণা করা হচ্ছে, আগামী বছর স‍্যামসাং এস১০ও এই ধরনের ক‍্যামেরা ব‍্যবহার করা হবে।

ফোল্ডেবল ফোন
বছরের অন্যতম একটি শব্দ ছিল ফোল্ডেবল বা ভাঁজযোগ্য ফোন। গত কয়েক বছর ধরে কাজ করে যাবার পর অবশেষে চলতি বছরে দেখা মেলে ফোনটির।

সবার আগে স্যামসাং এমন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ শুরু করলেও চলতি বছর সবার আগে বাজারে ফোল্ডেবল ফোন নয়ে হাজির হয় মার্কিনি সংস্থা রয়োল কর্পোরেশন। বিশ্বের প্রথম ফোল্ডেবল স্মার্টফোন ফ্লেক্সপে আনে প্রতিষ্ঠানটি।

এটিকে ট্যাবলেট বললেও ভুল বলা হবে না৷ কারণ ফোনটির ডিসপ্লে থাকছে ৭ দশমিক ৮ ইঞ্চির৷ কিন্তু ফোনটিকে ফোন্ড করার সঙ্গে সঙ্গে সেটির ডিসপ্লেটির সাইজ কমবে৷ ডিসপ্লেটিকে তৈরি করেছে রয়ল৷

ফোল্ডেবল স্মার্টফোনটির দাম থাকছে ১ হাজার ৩০০ ডলার থেকে শুরু হতে পারে।

স্লাইডার ফোন

চলতি বছর বেজেলহীন ডিসপ্লের দৌঁড়ে এগিয়ে থাকতে অনেক প্রতিষ্ঠান স্লাইডার ক‍্যামেরার ফোন বাজারে এনেছে। অনেকে প্রতিষ্ঠান পপআপ সেলফি ক‍্যামেরা বা মোটরাইজড প‍্যানেল সমৃদ্ধ ফোন বাজারে আনে।

ভিভো নেক্স স্মার্টফোনটি সম্পূর্ণ ফুল স্ক্রিন ডিভাইস করতে গিয়ে ব‍্যবহার হয়েছে পপআপ সেলফি ক‍্যামেরা।

ওপ্পো ফাইন্ড এক্স ফোনে আরেক ধাপ এগিয়ে দেয়া হয়েছে মোটরাইজড প্যানেল। সেখানে ফোনের ব‍্যাকপার্ট স্লাইড করলে মূল‍্য ডিসপ্লেটি একটু নিচে নেমে যায় এবং ফ্রন্ট ক‍্যামেরাটি চালু হয়।

এদিকে শাওমি তাদের মিক্স ৩ এবং হুয়াওয়ে ম্যাজিক ২ তে দিয়ে এই ধরনেরই স্লাইডিং প্যানেল। সেটা আগেরকালের স্লাইডিং ফিচারফোনের মতো স্লাইড করে উঠাতে নামাতে হয়। তবে এই স্লাইডিং ফোনগুলো খুব বেশি জনপ্রিয়তা পায়নি। অনেকের ধারণা এই ধরনের ফোনগুলোর স্লাইডার উঠাতে নামাতে গেলে দীর্ঘদিন ব‍্যবহার করা যাবে না।

টিএ/ইএইচ/ডিসে২৯/২০১৮/১৭৪০

আরো পড়ুন ঃ-

স্মার্টফোনে ১৬ লেন্স!

চমক দেয়া স্মার্টফোনগুলো

*

*

আরও পড়ুন