স্মার্ট খেলনায় শিশুর বিপদ!

Smart-Toy-Techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: অনেক বাবা-মাই শখ করে শিশুকে স্মার্ট খেলনা কিনে দেন। খেলনাগুলো কথা বলাসহ নানাভাবে যোগাযোগ করতে সক্ষম হওয়ায় তা শিশুরাও বেশ পছন্দ করে।

কিন্তু স্মার্ট খেলনা শিশুর জন্য বিপদ ডেকে আনতে পারে জানিয়েছে ভারব্রাউচারজেনট্রাল নেইদেরসাসেন নামে জার্মান প্রযুক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠান। তাই বেশ কয়েকটি বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির দাবি, হ্যাকাররা চাইলেই স্মার্ট খেলনা দিয়ে শিশুর ওপর নজরদারি শুরু করতে পারে। এমনকি হাতিয়ে নিতে পারে গোপন তথ্য। যা শিশুর নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে দাড়াবে।

তাই ভারব্রাউচারজেনট্রাল নেইদেরসাসেন সতর্ক করে বলেছে, শিশুদের স্মার্ট খেলনা কিনে দেওয়ার আগে ক্যামেরা বা মাইক্রোফোন আছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখা উচিত।

কারণ হ্যাকাররা এসব খেলনায় থাকা ক্যামেরা বা মাইক্রোফোন দিয়ে কারো ব্যক্তিগত ভিডিও বা অডিও রেকর্ড করে নিতে পারে।

প্রতিষ্ঠানটি আরও বলেছে, সাধারণত স্মার্ট খেলনাগুলোয় থাকা মাইক্রোফোন বা ক্যামেরা অ্যাপের মাধ্যমে ডিঅ্যাকটিভ করে রাখা যায়। খেলনার মধ্যেও এগুলো অন করার সুইচও থাকে। ভুলে ক্যামেরা ও মাইক্রোফোন ডিঅ্যাকটিভ না করা হলে বিপদ আসতে পারে।

তাই খেলনা কেনার সময় প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট থেকে বিষয়টি ভালোভাবে জেনে নিতে হবে।

জার্মান প্রতিষ্ঠানটি মনে করে, স্মার্ট খেলনা শিশুর হাতে দিলেও তাতে কোনোভাবেই ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়া যাবে না। আর খেয়াল রাখতে হবে, ক্যামেরা ও মাইক্রোফোন নিয়ন্ত্রণের অ্যাপটি অন্য কেউ নিয়ন্ত্রণ করছে কিনা।

একইসঙ্গে খেলনাটি যে নেটওয়ার্কের মাধ্যমে পরিচালিত হয় তাও সম্পূর্ণ নিরাপদ হতে হবে। এক্ষেত্রে শক্তিশালী পিন কোড বা পাসওয়ার্ড দিতে হবে।

আর খেলনাটি নিজে থেকেই স্মার্টফোন বা ট্যাবের ব্লুটুথের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে কিনা সেদিকেও বিশেষ নজর রাখতে হবে।

স্টার অনলাইন অবলম্বনে এসআই/ডিসে২৬/২০১৮/০৩৩০

আরো পড়ুন ঃ-

রোবট কুকুরের দাম আড়াই লাখ!

আই লাইফ কিডস ট্যাব ৭: সাধারণ হলেও বিশেষ ফিচারে দারুণ

*

*

আরও পড়ুন