চলে গেলেন এইচকিউ ট্রিভিয়ার তরুণ সিইও

vine-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : জনপ্রিয় লাইভ স্ট্রিমিং ভিডিও গেইম এইচকিউ ট্রিভিয়া ও ভিডিও প্ল্যাটফর্ম ভাইনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা কলিন ক্রোলের মৃত্যু হয়েছে। ম্যানহাটনে ফ্ল্যাটে ৩৪ বছর বয়সী এই উদ্যোক্তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

নিউইয়র্ক পুলিশকে তার অসুস্থতার বিষয়ে খোঁজ খবর নিতে বলেন কলিনের বান্ধবী। পুলিশ ম্যানহাটনের ফ্ল্যাটে গিয়ে তাকে অচেতন অবস্থায় পায়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মাত্রারিক্ত মাদক গ্রহণের ফলে তার মৃত্যু হয়েছে।

রুস ইউসুপভের সঙ্গে মিলে এইচকিউ গেইমটি ২০১৭ সালে তৈরি করেছিলেন কলিন। তার মৃত্যুতে টুইট বার্তায় রুস লিখেছেন, বড় মাপের মন ও দয়ালু স্বভাবের জন্য তাকে কখনোই ভুলবো না। সে ইন্টারনেটের জগতকে আরও উন্নত করতে সহায়তা করেছে।

কলিন ক্রোলের বাবা বলেন, সে অনেক মেধাবী ছিল। এত কম বয়সে সে যা অর্জন করেছিল তার সবই আজ বৃথা হয়ে গেল।

গত তিন মাস ধরেই ট্রিভিয়া অ্যাপটির সিইওর দায়িত্ব পালন করছিলেন কলিন। লাইভ স্ট্রিমিং গেইমটিতে জিতলে গেইমারদের পুরস্কার হিসেবে অর্থ দেওয়া হয়। এ অর্থ পেপ্যালের মাধ্যমে বিজয়ীদের কাছে পৌঁছে যায়।

প্রথম দিকে জনপ্রিয় হলেও সেটি ধরে রাখতে পারেনি গেইমটি। চলতি বছর অ্যাপ স্টোরের শীর্ষ ১০০ অ্যাপের তালিকা থেকে ছিটকে পড়ে এইচকিউ ট্রিভিয়া।

এ ছাড়া, ৬ সেকেন্ডের ভিডিও ক্লিপ তৈরির প্ল্যাটফর্ম ভাইন তৈরির সঙ্গেও জড়িত ছিলেন তিনি। ২০১২ সালে উন্মোচনের আগেই তিন কোটি ডলারে টুইটারের কাছে বিক্রি হয়ে যায় ভাইন।

এর ১৮ মাস পর অব্যবস্থাপনার অভিযোগে টুইটার থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় কলিনকে। আনুষ্ঠানিকভাবে ভাইন মোবাইল অ্যাপটি বন্ধ ঘোষণা করা হয় ২০১৬ সালে।

বিবিসি অবলম্বনে এজেড/আরআর/ডিসে ১৭/২০১৮/১১৫০

*

*

আরও পড়ুন