রোগ সারাবে ইলেকট্রনিক ক্যাপসুল

electronic-capsule-Techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: চিকিৎসকরা অনেকসময় রোগীকে ট্যাবলেটের পাশাপাশি ক্যাপসুলও খেতে দেন। এসব ক্যাপসুলের ভেতরে প্রয়োজনীয় মাত্রায় ওষুধ থাকে।

তবে এবার সম্পূর্ণ ভিন্ন ধরনের থ্রিডি প্রিন্টেড ইলেকট্রনিক ক্যাপসুল উদ্ভাবন করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানীরা। এটি শরীরের ভেতরে গিয়ে মাত্রা অনুযায়ী ওষুধ সরবরাহ করবে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, দীর্ঘদিন ধরে থাকা অসুখের সঙ্গে লড়াইয়েও বড় সাহায্যকারীর ভূমিকা পালন করবে ইলেকট্রনিক ক্যাপসুল। এছাড়া অ্যালার্জি এবং অ্যান্টিহিস্টামিন থেকে মুক্তি দিতেও কাজ করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবিত ইলেকট্রনিক ক্যাপসুলটির সবচয়ে বড় বৈশিষ্ট হলো এটি ব্লুটুথের মাধ্যমেই নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

উদ্ভাবকরা জানান, ক্যাপসুলটি ওয়াই আকৃতির। তারবিহীন হওয়ায় শরীরের ভেতরে পাঠানোর পর দূর থেকেও সহজেই নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। রোগীকে কিছু ক্ষেত্রে ইনজেকশন নেওয়ার হাত থেকে মুক্তি মিলবে।

তারা বলছেন, ডিভাইসটি রক্তের ভেতরে গিয়ে রোগের বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত নিয়ে তা ব্লুটুথের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর স্মার্টফোনে পাঠাবে। আর তা দেখে সহজেই রোগের ধরণ ও অবস্থা নির্ণয় করতে পারবেন চিকিৎসকরা।

ক্যাপসুলটি উদ্ভাবনের সঙ্গে জড়িত এমআইটির অধ্যাপক জিওভানি ট্রাভারসো বলেন, ডিভাইসটি সংক্রামিত এলাকার খুব কাছে থেকে নজরদারি ও তথ্য পাঠাতে পারবে।

তিনি বলেন, যাদের শরীরে ইনফেকশন হওয়ার ভয় রয়েছে তাদের দিকেও খেয়াল রাখবে ক্যাপসুলটি। বিশেষ করে যারা কেমোথেরাপি নেন অথবা কড়া মাত্রার ওষুধ সেবন করেন।

অধ্যাপক ট্রাভারসো জানান, ক্যাপসুলটি সংক্রামিত স্থানে পৌঁছে পরিমাণ অনুযায়ী অ্যান্টিবায়োটিক দেবে। এছাড়া এটি ডায়াবেটিস থেকে শুরু করে এইচআইভি, ম্যালেরিয়া চিকিৎসায়ও ভূমিকা রাখতে পারবে।

মেইল অনলাইন অবলম্বনে এসআই/ডিসে১৫/২০১৮/০২১৫

*

*

আরও পড়ুন