মোবাইল খাতের নতুন সংগঠন বিএমপিএমএ

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারকরা নতুন সংগঠন করছেন।

বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন বা বিএমপিএমএ নামে সংগঠনটি ইতোমধ্যে নিবন্ধন পেয়েছে। এখন সদস্য সংগ্রহ ও কমিটি গঠনসহ সাংগঠনিক ও দাপ্তরিক বিষয়গুলো গুছিয়ে আনার কাজ চলছে।

দেশে টেকনো এবং আইটেল ব্র্যান্ডের কারখানা স্থাপন করা কোম্পানি ট্র্যানশান হোন্ডিংস, উই মোবাইলের আমরা নেটওয়ার্কস, স্যামসাং হ্যান্ডসেট কারখানার দেশীয় অংশীদার ফেয়ার ইলেক্ট্রনিকস, সিম্ফোনির এডিসন গ্রুপ এবং ফাইভ স্টার মোবাইলের আল-আমিন ব্রাদার্স শুরুতে সংগঠনটির সঙ্গে যুক্ত থাকছেন।

যেহেতু হ্যান্ডসেট নির্মাতাদের সংগঠন তাই ওয়ালটনও এখানে যুক্ত হবে বলে সংগঠনটির উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন। দেশের প্রথম হ্যান্ডসেট কারখানা স্থাপনকারী কোম্পানি ওয়ালটন।

বিএমপিএমএ’র অন্যতম উদ্যোক্তা  ট্রানশান হোল্ডিংস বাংলাদেশের সিইও রেজওয়ানুল হক টেকশহরডটকমকে জানান, দেশে মোবাইল ফোন আমদানিকারকদের সংগঠন থাকলেও উৎপাদনকারীদের কোনো সংগঠন ছিল না।

‘সরকার বাজেটে হ্যান্ডসেট সংযোজনের ক্ষেত্রে বাড়তি কর সুবিধা দেয়ায় এখানে একে একে কারখানা গড়ে উঠছে। ফলে এ খাতের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়সহ বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে  উদ্যোক্তাদের একটি সংগঠনিক প্লাটফর্ম প্রয়োজন হবে। সেই প্লাটফর্ম হবে এই সংগঠন।’ বলছিলেন রেজওয়ান।

দেশে বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোটার্স অ্যাসোসিয়েশন বা বিএমপিআইএ নামে আমদানিকারকদের একটি সংগঠন রয়েছে। এতদিন এ খাতের বিভিন্ন ইস্যুতে ও দেন-দরবারে এই সংগঠনই কাজ করতো।

যদিও নতুন সংগঠন বিএমপিএমএ’র সদস্যরাই বিএমপিআইএ’র ‘শীর্ষ পর্যায়ের বা প্রভাবশালী’ সদস্য।

উদ্যোক্তারা বলছেন, এখন হতে হ্যান্ডসেট খাতে আমাদানিকারক এবং প্রস্তুতকারকরা নিজ নিজ বিশেষায়িত সংগঠনের ব্যানারে কথা বলবেন।

উল্লেখিত ছয়টি কোম্পানি ছাড়াও বাংলাদেশে হ্যান্ডসেট কারখানা করার বিষয়ে হুয়াওয়ে ও এলজি উদ্যোগের বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।

স্থানীয়ভাবে হ্যান্ডসেট সংযোজনে ২০১৭ সালে সরকার ব্যাপক সুবিধা ঘোষণার পর সে বছরই দেশীয় উৎপাদনের সুযোগ নিশ্চিত করতে ডিভাইস উৎপাদন ও সংযোজন কারখানা স্থাপনের নির্দেশিকা জারি করে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। এর পরই দেশে হ্যান্ডসেট সংযোজন কারখানা হতে থাকে।

ধারণা করা হয়, আট হাজার কোটি টাকার মোবাইল হ্যান্ডসেটের বাজার রয়েছে বাংলাদেশে।

এডি/নভে১০/২০১৮/২০৩৩

*

*

আরও পড়ুন