পাঁচ বছরে ই-ক্যাব

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : চার বছর পার করলো দেশের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ বা ই-ক্যাব।

বৃহস্পতিবার সংগঠনটি চার বছর পূর্তি করে পাঁচ বছরে পদার্পন করেছে।

চার বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ই-ক্যাব একটি করফারেন্স আয়োজন করে। রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে বিকেলে ‘ডিজিটাল কমার্স পলিসি-ট্র্যাটেজিক ভিশন’ শিরোনামে ওই কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়।

Techshohor Youtube

কনফারেন্সে ডিজিটাল কমার্স পলিসি নিয়ে একটি প্রেজেন্টেশন দেন ই-ক্যাব ভাইস প্রেসিডেন্ট রেজোয়ানুল হক জামি। তিনি তার প্রেজেন্টেশনে দেশে খাতটির ধারাবাহিক অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরেন। একই সঙ্গে তিনি ডিজিটাল পেমেন্ট ব্যবস্থায় জোর দেবার কথা জানান।

ই-ক্যাব সভাপতি শমী কায়সার বলেন, একটা সময় কিন্তু আমরা শুধু ই-কমার্স পলিসি নিয়ে আলোচনা করেছি। কিন্তু ব্যবসা এখন শুধু ই-কমার্স নামের গণ্ডির মধ্যে নেই। এটি ছড়িয়ে পড়েছে, তাই এখন ডিজিটাল কমার্স পলিসি নিয়ে কাজ করছি। কারণ সব ব্যবসাই এখন ই-কমার্স আদলে শুরু হয়েছে।

আরেক উপস্থাপনায় ই-ক্যাবের পরিচালক আশীষ চক্রবর্তী জানান, দেশে এখন এক হাজারের মতো ই-কমার্স সাইট ব্যবসা পরচিালনা করছে। ফেইসবুক ভিত্তিক প্রায় ১০ হাজার পেইজে তরুণরা ই-কমার্স ব্যবসা করছে। কিন্তু এর বেশিরভাগই ক্যাশ অন ডেলিভারি সিস্টেম মেনে চলে। তাতে করে যেটা হয় যে, ব্যাংক ঋণ পেতে সমস্যা হয়। কারণ তার লেনদেন রেকর্ড থাকে না ব্যাংকের কাছে। তাই এটি ডিজিটাল করার জন্য জোর দিতে বলেন তিনি।

কনফারেন্সটিতে ই-কমার্স খাতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা অংশ নিয়েছিলেন। সম্মেলন শেষে কেক কেটে ই-ক্যাবের চার বছর পূর্তি উদযাপন করেন অ্যাসোসিয়েশনটির সদস্যরা।

দেশের ই-কমার্স খাতের সমস্যা চিহ্নিত করেই তার সমাধানে কাজ করতে ২০১৫ সালের ৮ নভেম্বর যাত্রা হয় ই-ক্যাবের।

ইএইচ/নভে০৯/২০১৮/১০৩৮

আরো পড়ুন ঃ-

ই-কমার্স বুঝলেও কেনাকাটার পদ্ধতি অজানা ৫৯ শতাংশ মানুষের

ভারতে অনলাইনে বিক্রির ৫ পণ্যের একটিই নকল

ই-কমার্সে বিদেশি বিনিয়োগ, শংকায় ভারত-বাংলাদেশের উদ্যোক্তারা

*

*

আরও পড়ুন