মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতার মৃত্যু

paul-alan-techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা পল অ্যালেন আর নেই। সোমবার সন্ধ্যায় সিয়াটলে ৬৫ বছর বয়সে লিম্ফাটিক ক্যান্সারে তার মৃত্যু হয়।

তার মৃত্যুতে বিল গেটস এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, অন্যতম পুরানো ও কাছের বন্ধুর মৃত্যতে আমি শোকাহত। তার অবদান ছাড়া ব্যক্তিগত কম্পিউটারের কোনো অস্তিত্বই থাকতো না। ছোটবেলায় আমরা একসঙ্গে স্কুল শুরু করেছিলাম। মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠায় অংশীদারিত্ব ছাড়াও বিভিন্ন জনসেবামূলক প্রকল্পে আমরা একসঙ্গে কাজ করেছিলাম।

মাইক্রোসফটের বর্তমান প্রতিষ্ঠাতা সত্য নাদেলা তার মৃত্যুতে বলেছেন, পল অ্যালেন অসাধারণ সব পণ্য তৈরি করে পৃথিবী বদলে দিয়েছিলেন। তার কাছ থেকে আমি বহু কিছু শিখেছি।

বিল গেটস ও পল অ্যালেন মিলে ১৯৭৫ সালে প্রতিষ্ঠা করেন মাইক্রোসফট। কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আইবিএম ১৯৮০ সালে তাদের কম্পিউটারের জন্য মাইক্রোসফটকে অপারেটিং সিস্টেম সরবরাহের দায়িত্ব দিলে তারা দুজন বিলিয়নিয়ারে পরিণত হন।

paul-techshohor
বিল গেটসের সঙ্গে পল অ্যালেন (বাঁয়ে)

সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ফোবর্সের শীর্ষ ধনী ব্যক্তিদের তালিকা অনুযায়ী তার অবস্থান ছিলো ৪৪ তম। তিনি মোট ২০ বিলিয়ন বা দুই হাজার কোটি ডলারের মালিক ছিলেন।

জীবদ্দশায় তার দানকৃত অর্থের পরিমাণ ছিলো দুই বিলিয়ন বা দুইশ’ কোটি ডলার। সমুদ্র বিজ্ঞান, শিক্ষা খাত ও বন্য প্রাণী সংরক্ষণে তিনি এ অর্থ দান করেছিলেন।

ওয়াশিংটন স্টেট ইউনিভার্সিটিতে পড়লেও তিনি ড্রপ আউট ছিলেন। তার সঙ্গে বিল গেটসের সম্পর্ক ছিলো টানাপোড়নের। নিভৃতচারী অ্যালেন ছিলেন অবিবাহিত। বিপুল পরিমাণ সম্পদের জন্য তিনি কোনো উত্তরাধিকারী রেখে যাননি।

সর্বপ্রথম ১৯৮২ সালে তার স্টেজ ১-এ হজকিন্স লিম্ফোমা ক্যান্সার ধরা পরে। কয়েক মাস রেডিয়েশন থেরাপি নেওয়ার পর তাকে বোন ম্যারো ট্রান্সফার করতে হয়। এরপরে ২০০৯ সালে তার নন-হজকিন্স লিম্ফোমা ধরা পরে। তখন থেকেই তার লিম্ফাটিক ক্যান্সারের চিকিৎসা চলছিল। চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠলেও গত দুই সপ্তাহ আগে রোগটি পুনরায় তার শরীরে ফিরে আসে। এই রোগেই তার মৃত্যু হয়।

দ্য গার্ডিয়ান ও বিবিসি অবলম্বনে এজেড/ অক্টো/ ১২৫০

*

*

আরও পড়ুন