Techno Header Top and Before feature image

সিম্ফনির মোবাইল ফোন কারখানা উদ্বোধন

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে সিম্ফোনির হ্যান্ডসেট সংযোজন কারখানার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়েছে।

রোববার সকালে সাভারের আশুলিয়ায় ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার কারখানাটির উদ্বোধন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জহুরুল হক, এডিসন গ্রুপ্রের চেয়ারম্যান আমিনুর রশীদ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকারিয়া শাহীদ এবং এডিসন ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক এসএম মোর্শেদুজ্জামান।

কারখানার উদ্বোধনকালে মোস্তাফা জব্বার বলেন, মানসম্পন্ন হ্যান্ডসেট তৈরির জন্য বিটিআরসির নির্দেশনা মেনেই কারখানা করেছে সিম্ফোনি। এ কারণেই তারা দেশে মোবাইল ফোন তৈরির অনুমোদন পেয়েছে। আশা করা যায়, বিদেশি ব্র্যান্ডগুলোর তুলনায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা সক্ষমতায় এগিয়ে থাকবে দেশে তৈরি সিম্ফনি মোবাইল ফোন।

workshop-techshohor

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের স্মার্টফোন বাজার ব্যাপক সম্ভাবনাময়। এতদিন মোবাইল হ্যান্ডসেটের জন্য আমাদেরকে বিদেশি কোম্পানির ওপর নির্ভর করতে হত। বর্তমান সরকার দেশে হ্যান্ডসেট তৈরিতে যন্ত্রাংশ আমদানিতে ব্যাপক শুল্কছাড়সহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দেয়। যার ফলে এখন দেশি-বিদেশি সবাই এ দেশে কারখানা করছে।

উদ্বোধনী বক্তব্যের পর মোস্তাফা জব্বার সিম্ফোনির মোবাইল ফোন কারখানার প্রোডাকশন লাইন, গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগ, মাননিয়ন্ত্রণ বিভাগ ও টেস্টিং ল্যাব ঘুরে দেখেন।

এরপর এক অনুষ্ঠানে আমিনুর রশীদ বলেন, মোবাইল ফোনের মতো হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ চালু দেমের শিল্প খাতের জন্য হবে ঐতিহাসিক। এতে লাভবান হবে সরকার, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এবং জনগণ। এর ফলে বিশাল অঙ্কের বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হবে। বাড়বে রপ্তানি আয়। কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি দেশেই তৈরি হবে এ খাতের দক্ষ জনবল। পাশাপাশি গড়ে উঠবে এর সঙ্গে যুক্ত অন্যান্য শিল্প।

জাকারিয়া শাহীদ জানান, সিম্ফোনি ‘এ’ ক্যাটাগরি কারখানার জন্য আবেদন করেছিল। অনুমোদন পাওয়ার পর সে অনুয়ায়ী আন্তর্জাতিক মানের হ্যান্ডসেট উৎপাদন কারখানা স্থাপন করা হয়েছে।

সিম্ফোনির কারখানায় ৮০ ভাগ জনবল কারিগরি প্রতিষ্ঠান থেকে নিয়োগ দেয়া তাদের প্রশিক্ষিত করে তোলার কথা উল্লেখ করে  এসএম মোর্শেদুজ্জামান জানান, কারখানা পরিচালনার জন্য এই জনবলকে প্রশিক্ষিত করতে বিদেশেও নেয়া হয়েছে। এখানে অনেক নারী কর্মীও রয়েছেন।

symphony-techshohor

সিম্ফোনির কর্মকর্তারা জানান, ৫৭ হাজার বর্গফুট জায়গায় এই কারখানা। এখানে  জাপান ও জার্মান প্রযুক্তির মেশিনারিজ স্থাপন করা হয়েছে। জনবলের সংখ্যা প্রায় ৫০০ ।

বছরে ৩০ হতে ৪০ লাখ হ্যান্ডসেট সংযোজনের পরিকল্পনার কথা জানান তারা। ইতোমধ্যে আটটি প্রোডাকশন লাইন স্থাপন করা হয়েছে।

চলতি মাসেই এখানে সংযোজিত হ্যান্ডসেট বাজারজাত করতে চাইলেও অনুমোদন নিয়ে তা করতে অক্টোবরের মাঝামাঝি হয়ে যেতে পারে বলে বলছেন তারা ।

স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত হ্যান্ডসেট দিয়ে দেশীয় চাহিদার বড় অংশ পূরণের পাশাপাশি রপ্তানির লক্ষ্যও রয়েছে সিম্ফোনির। আফ্রিকার দেশগুলো সম্ভাবনাময় বাজার হতে পারে বলে মনে করছেন কোম্পানির কর্মকর্তারা।

আল-আমীন দেওয়ান

২ টি মতামত

*

*

আরও পড়ুন