জিপি অ্যাক্সেলেরেটরে নির্বাচিত চার উদ্যোগ

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোনের অ্যাক্সেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচে চার উদ্ভাবনী উদ্যোগ নির্বাচিত হয়েছে।

আলাদা ও বৈচিত্র্যময় ডোমেইন ও শিল্পখাতে নিজেদের প্রবৃদ্ধি এবং সাধারণ মানুষ তাদের প্রাত্যহিক জীবনে যেসব সমস্যার মুখোমুখি হয় তার সমাধান দিয়ে চারটি স্টার্টআপ সবার উপরে নিজেদের জায়গা করে নিয়েছে বলে জানিয়েছে গ্রামীণফোন।

পঞ্চম ব্যাচে এক হাজারের বেশি আবেদন থেকে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত স্টার্টআপগুলো হচ্ছে, সার্চ ইংলিশ, পার্কিং কই, সিওয়ার্ক এবং অনুকিট।

সার্চ ইংলিশ ভয় ও লজ্জা কাটিয়ে উঠে সাধারণ মানুষ যেনো তাদের ইংরেজি দক্ষতা বাড়াতে পারে তারই একটি প্ল্যাটফর্ম। ‘জীবন পরিবর্তনে ইংরেজি শিক্ষা’ প্রতিপাদ্য নিয়ে এ প্ল্যাটফর্ম ১৫ লাখের বেশি মানুষকে অনলাইনে ইংরেজি শেখার উন্নয়নে সহায়তা করছে। এক বছরের সময়ের মধ্যে সার্চ ইংলিশের এক হাজারের বেশি সফলগাঁথা রয়েছে।

পার্কিং কই অ্যাপের মাধ্যমে চালকদের সহায়তা করছে কাছাকাছি পার্কিংয়ের জায়গা খুঁজে পাওয়ার ব্যাপারে। একই সঙ্গে, এটা মালিকদের জন্য যাদের পার্কিংয়ের জায়গা এখনও খালি পড়ে আছে তাদের কাছে বিকল্প আয়ের উৎস তৈরি করবে।

সিওয়ার্ক মাইক্রো জব প্ল্যাটফর্ম হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে জিপি অ্যাক্সেলেরেটরে। এর মাধ্যমে নিয়োগদাতারা সহজেই যেকোনো বড় কাজের সমাধান করিয়ে নিতে পারেন। সিওয়ার্ক কাজগুলোকে ছোট ছোট ভাগে বিভক্ত করে নির্বাচিত ডিস্ট্রিবিউটর পুলের মধ্যে দিয়ে দেয়। এখানের সহস্রাধিক ভেরিফায়েড কট্রিবিউটর তাদের কাজ শেষ করে অনলাইনেই কাজটি সাবমিট করে। ‘সিওয়ার্ক’ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) ব্যবহার করে কাজের মান যাচাই করে এবং নিয়োগদাতাদের কাছে সম্পন্ন কাজটি জমা দিয়ে দেয়।

অনুকিট জিপি অ্যাক্সেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচের অন্যতম অভিনব স্টার্টআপ। অনুকিট অ্যাপ এসএমইগুলোকে তাদের দৈনন্দিন যোগাযোগকে কার্যকরী উপায়ে করার ব্যাপারে সহায়তা করবে। শুধুমাত্র অনুকিট অ্যাপ ব্যবহার করার মাধ্যমে ব্যবসার মালিকরা তাদের ব্যবসার পারফরমেন্সের হিসেব রাখতে পারবে।

জিপি অ্যাক্সেলেরেটরে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

তিনি বলেন, এই উদ্যোগ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্পকে সমর্থন দেয় এবং আমি জিপি অ্যাক্সেলেরেটরে অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে জানতে পেরেছি যে, তারা চলতি পথে পার্কিংয়ের স্থান খুজে বের করার সমস্যা সমাধানে কাজ করছে যা আমাকে আনন্দিত করেছে।

গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন, প্ল্যাটফর্মটি দেশে একটি শক্তিশালী স্টার্টআপ ইকো সিস্টেম গড়ে তুলেছে এবং দ্রুত দেশের সবচেয়ে আকর্ষনীয় মেন্টরশিপ কর্মসূচীতে পরিণত হয়েছে।

জিপি অ্যাকসেলেরেটর একটি উদ্ভাবনী প্ল্যাটফর্ম যা স্টার্টআপগুলোকে আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় প্রশিক্ষকদের সাথে চার মাস মেয়াদী মেন্টরশিপ কর্মসূচির সুযোগ করে দেয়। নির্বাচিত স্টার্টআপরা ৮ শতাংশ ইক্যুইটির বিপরীতে সিডফান্ডিং হিসেবে পায় ১৫ হাজার মার্কিন ডলার।

এছাড়াও, স্টার্টআপগুলো ১১ হাজার ২০০ মার্কিন ডলার সমমূল্যের অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিস ক্রেডিট (এডব্লিউএস) ও জিপি হাউজে অফিস করার সুযোগ পায়।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

আরও পড়ুন