স্মার্টফোনের ডিজাইনে নতুনত্ব আসছে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সামনে টাচস্ক্রিন, পেছনে ক্যামেরা ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট; বাজারের প্রতিটি ফোনের ডিজাইন দেখতে গেলে একই।

তাই নিজেদের একটু ভিন্ন বোঝাতে, অন্যদের ডিভাইসের সঙ্গে নিজেদেরটায় পার্থক্য করতে আলাদা কিছু করার দিকে এখন মনোযোগ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের।

তারপরও থেকে যায় ‘কিন্তু’। কী এমন নতুন ডিজাইন দেবেন নির্মাতারা? কতটা বদলাবেন নিজেদের ডিভাইস?

সেই ডিভাইস আলাদা করার জন্য প্রথমেই নির্মাতারা বেছে নেন এর রঙ। হুয়াওয়ে ও অপ্পো বিশেষ করে তাদের ফোনে ব্যবহার করছে চোখ ধাঁধানো সব রং। যেমন হুয়াওয়ের টোয়াইলাইট ও অপ্পোর ডায়মন্ড ব্ল্যাক।

রঙ ব্যবহারের মধ্যেও রয়েছে চমক, দৃষ্টিকোণ বদলের সঙ্গে বদলে যায় রঙের শেড ও গভীরতা। অপ্পোর ক্ষেত্রে দেখা যায় ডায়মন্ডের মতো ডিজাইনও।

অন্যদিকে আরেক নির্মাতা প্রতিষ্ঠান শাওমি এবারের ফ্ল্যাগশিপকে আলাদা করতে পেছনের পুরোটাই স্বচ্ছ করেছে। নতুন এই ডিজাইনে ব্যবহারকারী ফোনটির ভেতরের সার্কিটবোর্ডটি সরাসরি দেখতে পাবেন। নতুন এই ডিজাইন ইতোমধ্যে সাড়া ফেলেছে।

ভিভো আর অপ্পো তাদের ডিভাইনে শুধু রঙ নয়, পাশাপাশি ফোনের আকৃতিই দিয়েছে বদলে। সেলফি ক্যামেরার জন্য ফোনে রাখেনি বেজেল, ডিসপ্লের মধ্যে নেই কোনও কাটা জায়গা। ক্যামেরা এবং অন্যান্য সেন্সরের জায়গা হয়েছে ফোনের ভেতর লুকানো স্লাইডারে, যা প্রয়োজন অনুযায়ী নিজ থেকেই বেরিয়ে পড়বে।

হয়তো এটাই শেষ নয়, ডিজাইনে নতুনত্ব মানে নতুন গ্রাহক পাওয়া, এর ব্যবসায়িক সফলতাও। আর তেমনটাই মাথায় রেখে চমক দেখাতে চায় স্যামসাং। চলতি বছরেই ব্র্যান্ডটি বাজারে আনবে ভাঁজযোগ্য ডিসপ্লের ডিভাইস।

শুধু স্যামসাং নয়, এর বাইরেও অপ্পো, ভিভো, মটোরোলা থেকে শুরু করে অনেক প্রতিষ্ঠান চাইছে তারা আগামী বছরেই ডিসপ্লেকেই ভাঁজ করা যাবে এমন ফোন বাজারে আনতে।

সে সকল ফোনের ডিজাইন কেমন হবে তার কিছুই এখনো জানা যায়নি। কিন্তু বাজারের আর সব ফোনের চেয়ে যে তার চেহারা হবে অন্যরকম তাতে সন্দেহ করার বিন্দুমাত্র অবকাশ নেই।

জিএসএমএরিনা অবলম্বনে এস এম তাহমিদ

*

*

আরও পড়ুন