বছরের সেরা সব গেইমিং ল্যাপটপ

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : পিসিতে গেইম খেলার মজা আর যাই হোক কনসোল বা ফোনে পাওয়া সম্ভব নয়। আর সেটি সঙ্গে বয়ে বেড়াতে হলে গেইমিং ল্যাপটপ ছাড়া গতি নেই।

চলতি বছরের বেশিরভাগ সময় এরই মধ্যে পেড়িয়ে গেছে। বাজারেও এসেছে বেশ কিছু নতুন গেইমিং ল্যাপটপ। সেগুলোর ফিচার ও ব্যবহারযোগ্যতা অনুযায়ী গেইমিং ল্যাপটপ ব্র্যান্ডের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে ল্যাপটপম্যাগ।

এই তালিকায় সবার ওপরে রয়েছে এমএসআই। অত্যন্ত পাতলা কিন্তু শক্তিশালী কিছু ল্যাপটপ তারা এ সময়ের মধ্যেই বাজারে এনেছে। এর মধ্যে আছে জিএস৬৫ স্টেলথ থিন ও জিই৬৩ রেইডার আরজিবি।

শুধু হার্ডওয়্যার নয়, প্রচুর গেইম সহায়ক সফটওয়্যারও তৈরি করেছে ব্র্যান্ডটি । সব মিলিয়ে, গেইমিং   ল্য়াপটপ নির্মাতাদের মধ্যে সবচাইতে বেশী সমাদৃত হয়েছে তারা।

দ্বিতীয় স্থানে আছে এইসার এবং এলিয়েনওয়্যার। দুটি কোম্পানিই চেষ্টা করেছে গেইমিং ল্য়াপটপে নতুনত্ব আনতে, এইসার বিশ্বের প্রথম ২১ ইঞ্চি ডিসপ্লের গেইমিং ল্যাপটপ তৈরি করে সবার মধ্যে সারা ফেলে দিয়েছিল। তবে এলিয়েনওয়্য়ার তাদের ডিজাইনে নতুনত্ব তেমন আনতে না পারায় এবং এইসার ল্যাপটপের ডিসপ্লে প্রযুক্তি আর সবার মত উন্নত না হওয়ায় তারা প্রথম স্থান নিতে পারেনি।

তৃতীয় স্থানে নির্মাতা রেজারের দেখা পাওয়া যাবে, সেটা আশ্চর্যজনক। শুধুমাত্র গেইমিং পেরিফেরাল এবং ল্য়াপটপ তৈরিই যাদের ধ্যান জ্ঞান তাদের অবস্থান আরও উপরে হওয়ার কথা ছিল। হালকা পাতলা কিন্তু শক্তিশালী গেইমিং ল্য়াপটপ তৈরি শুরু করেছিল সবার আগে রেজার। কিন্তি বাজারে মডেলের ঘাটতি, সহজলভ্যতার অভাব এবং ওয়ারেন্টি সেবায় পিছিয়ে থাকাই তাদের কাল হয়েছে।

চতুর্থ স্থানে আছে আসুস। তাদের রিপাবলিক অফ গেইমারস ব্র্যান্ডের ঝলকে অনেকেই গেইমিং ল্য়াপটপের রাজা তাদের মনে করলেও, ডিজাইন, ডিসপ্লের মান, ওয়ারেন্টি এবং ইনোভেশনের অভাব এ বছর আসুসকে কিছুটা পেছনে ফেলে দিয়েছে। কিন্তু তাদের নতুন যেসকল মডেল পরীক্ষাধীন আছে সেগুলো বাজারে আসলে আগামীতে আরও উপরে নিজেদের দেখবে আসুস।

পঞ্চম স্থান ধরে রেখেছে এইচপি। বহুসময় ধরে ল্যাপটপের বাজারে থাকলেও, গেইমিং ল্যাপটপে এইচপি মাত্রই অমেন সিরিজের মাধ্যমে প্রবেশ করেছে। তাদের ল্যাপটপগুলোর ডিজাইন অদ্ভুতুরে নয়, ফলে গেইমিং বা প্রফেশনাল কাজ, সবখানেই মানিয়ে যায়। ল্যাপটপের সঙ্গে এইচপির নিজস্ব কাস্টোমাইজেশন সফটওয়্যারও তারা ব্যবহার করেছে। আগামীতে এইচপি হয়ত আরও ভাল করবে গেইমিং ল্যাপটপের ক্ষেত্রে।

ষষ্ঠ স্থানে আছে গিগাবাইট, বা নির্দিষ্ট করে বললে তাদের গেইমিং ব্র্যান্ড অরাস। তাদের এরো ১৫ বা এক্স৯য়ের মত নজরকাঁরা ল্য়াপটপগুলো এর মধ্যেই গেইমারদের মন মাতাতে শুরু করেছে। অত্যন্ত শক্তিশালী হবার পরও এক্স৯য়ের মত হালকা পাতলা ল্যাপটপ বাজারে তেমন নেই। কিন্তু ডিসপ্লের মান কম হওয়ায় অরাস আরও ওপরে নিজেদের স্থান করতে পারেনি।

তালিকার একেবারে শেষে আছে ডেল এবং লেনোভো। ডেলের মূল সমস্যা, এলিয়েনওয়্যার যেহেতু এখন তাদেরই ব্র্যান্ড তাই সেরা ডিজাইন এবং ক্ষমতার ল্য়াপটপগুলো ডেল নামে বাজারে আনা হয় না। তার পরও ইনসপাইরন গেইমিং এবং নতুন জি৩ এবং জি৭ সিরিজের মাধ্যমে তারা বাজেট গেইমিং ল্য়াপটপ বাজার ধরার চেষ্টা চালাচ্ছে। আর লেনোভোর লিজিওন সিরিজটির পারফরমেন্স যথেষ্ট ভাল হওয়ার পরও, ডিসপ্লের মান, ডিজাইনে সুন্দর্যের অভাব এবং বিক্রির ওপর চাপ না দেয়ায় তারা বাজারে তেমন যুত করতে পারছে না।

ল্যাপটপম্যাগ অবলম্বনে এস এম তাহমিদ

*

*

আরও পড়ুন