কম্পিউটারের ভ্যাটও থাকছে না

computer market_techshohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কম্পিউটার ও এর যন্ত্রাংশের ওপর ভ্যাট ছাড়ের সুবিধা ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের কার্যালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়া এবং বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর তথ্যপ্রযুক্তি সংগঠনগুলোর বাজেট সংক্রান্ত দাবি ও আপত্তিগুলো নিয়ে বৈঠক করেন।

বৈঠকে কম্পিউটার ও এর যন্ত্রাংশের ওপর আগের ভ্যাট অব্যাহতির সুবিধা বহাল রাখার দাবি মেনে নেন অর্থমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এবং এনবিআর চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানিয়ে  ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার টেকশহরডটকমকে বলেন, বাজেটে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সবগুলো সমস্যার সমাধান পেয়েছি। শুধু সমস্যার সমাধান নয় আরও নতুন ভাল কিছু খবরও পেতে পারি।

চলতি অর্থবছরে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ৮৪ দশমিক ৭১ এবং ৮৪ দশমিক ৭৩ শিরোনাম সংখ্যা-এইচ এস কোড-এ ব্যবসায়ী পর্যায়ে কম্পিউটার ও এর যন্ত্রাংশের মূল্য সংযোজন কর (মূসক) অব্যাহতি প্রত্যাহার করার প্রস্তাব হয়েছে। ফলে কম্পিউটার ও এর যন্ত্রাংশের মূল্য প্রায় ১১ শতাংশ বেড়ে যাওয়ার কথা বলছিলেন এ খাতের ব্যবসায়ীরা।

২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে সম্মিলিত প্রতিক্রিয়া জানায় অ্যামটব, বেসিস, বিসিএস, বিএমপিআইএ, আইএসপিএবি, বাক্য ও ই-ক্যাব।

সেখানে বিসিএসের যুগ্ম-মহাসচিব মো. এ ইউ খান জুয়েল জানান, কম্পিউটারে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য ইউপিএস-আইপিএস অত্যাবশ্যকীয় পণ্য। কিন্তু ইউপিএস-আইপিএস এর শুল্কহার ১০ থেকে ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। বিদ্যুৎ সমস্যায় নিরবিচ্ছিন্নভাবে কম্পিউটার চালানো না গেলে কম্পিউটারের পরিপূর্ণ ব্যবহারের অন্তরায় হবে।

এছাড়াও কম্পিউটার প্রিন্টার এবং ফটোকপিয়ারে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্থিতিশীল রাখার জন্য ভোল্টেজ স্টাবিলাইজার অত্যাবশ্যকীয় পণ্য। ভোল্টেজ স্টাবিলাইজারের শুল্কহার বৃদ্ধি প্রস্তাব করা হয়েছে ১৫ শতাংশ। যা আগে এক শতাংশ ছিল।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

আরও পড়ুন