ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে বাজেটে নেওয়া উদ্যোগগুলো

Digital-bangladesh-techsohor
Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন কার্যক্রম বেড়েই চলেছে। এই কার্যক্রম আরো ত্বরাণিত করতে বেশ কিছু উদ্যাোগ ইতোমধ্যে সরকার নয়েছে বলে জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায় বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভরতা বাড়াতে দুই বিভাগের অধীনে বেশ কিছু উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

বাজেট বক্তৃতায় তিনি জানান, আগামী অর্থবছরে বিভাগ দুটির অধীনে বেশ কিছু উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হবে।

এসব উদ্যোগের মধ্যে, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নতুন অবকাঠামো নির্মাণ ও ইন্টারনেট সেবা সম্প্রসারণের কাজ চলছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ৬ বিভাগ থেকে ঢাকা পর্যন্ত ৪.৪০৮ জিবিপিএস এবং জেলা হতে বিভাগ পর্যন্ত মোট ৫.৯২৮ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ প্রদান এবং ওয়্যারলেস ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক (৪জি এলটিই) স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

দেশব্যাপী তথ্যপ্রযুক্তি কাঠামোর নিরাপত্তা ঝুঁকি এড়ানোর জন্য সাইবার স্পেস এবং ইন্টারনেটভিত্তিক সাইবার ক্রাইম পর্যবেক্ষণ এবং প্রতিহত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

তরুণদের নতুন প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও উদ্যোগ গ্রহণে উৎসাহিত করা, দক্ষতা বৃদ্ধি ও উদ্ভাবিত সামগ্রী ব্র্যান্ডিং ও বাণিজ্যিকীকরণ, মেধাস্বত্ব সংরক্ষণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো তৈরিতে ‘উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি’ প্রতিষ্ঠা করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

সরকারি সেবা দানের প্রক্রিয়া সহজ করতে ইউটিলিটি পেমেন্ট প্ল্যাটফর্ম (ইউপিপি) স্থাপন করা হচ্ছে। উপবৃত্তির টাকা পৌঁছানোর জন্য ২০ লাখ ‘মা’ কে দেয়া হচ্ছে টেলিটকের সিম।

বঙ্গোপসাগর উপকূলবর্তী দ্বীপ মহেশখালীকে ডিজিটাল নেটওয়ার্কের আওতায় আনার কাজ চলছে। তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে দ্বীপের অধিবাসীদের জীবন যাত্রার মানোন্নয়ন হবে।

এসব উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ তিন হাজার ৩৭৯ কোটি টাকা এবং তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগে দুই হাজার ৬৮১ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

আনিকা জীনাত

*

*

আরও পড়ুন