Samsung IM Campaign_Oct’20

সাইবারনটস রিটার্নসে বিজয়ী যারা

Evaly in News page (Banner-2)

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে শেষ হল  ‘সাইবারনটস রিটার্নস ২০১৮‘ আয়োজন। বিশ্ববিদ্যালটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ক্লাবের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় এই প্রযুক্তি উৎসব।

এতে প্রোগ্রামিং, গেইমিং ও ইঞ্জিনিয়ারিং প্রজেক্ট শোকেসের প্রতিযোগিতায় ছিল। প্রথমবারের মত জুনিয়র প্রজেক্ট শোকেসের ব্যবস্থা করা হয়েছিল আয়োজনে। সপ্তাহব্যাপী এই উৎসব ২৫ মার্চ শেষ হয়েছে।

আরো পড়ুন:  নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে বসছে প্রযুক্তি উৎসব

প্রতিযোগিতায় গেইমিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন ৩২টি দল ও ১২০ জন একক খেলোয়াড়। স্ট্রিট ফাইটার গেইমে সাইফুল ইসলাম, নিড ফর স্পিডে মাহফুজুল ইসলাম, ফিফাতে আবরার হোসেইন আদর, কড ফোরে ইনটক্সিকেটেড, সি এস গো এবং ডটা টুতে টিম কাউন্সিল চ্যাম্পিয়ন হয়।

এই উৎসবে সিনিয়র লেভেল প্রজেক্ট প্রদর্শনীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, রুয়েট, লিডিং বিশ্ববিদ্যালয়, এমআইএসটিসহ সারাদেশের ২৩টি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ৩৫টি দল অংশগ্রহণ করে। এতে চ্যাম্পিয়ন হন লিডিং বিশ্ববিদ্যালয়ের টিম আলফা এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের টিম স্পার্ক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হার্ডকোডারস যৌথভাবে রানার্স আপ হয়।

প্রোগ্রামিং প্রতিযোগীতায় ১৩৫টি দলের ৪০৫ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

পাঁচ ঘণ্টার এ প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদেরকে সর্বমোট ১২টি সমস্যা সমাধান করতে দেয়া হয়। প্রতিযোগিতায় প্রথম হয় ‘বুয়েট  ড্রাক্যারিস’ দল। এতে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেন ‘ডিইউ মেশিনম্যান এবং ‘বুয়েট ড্রাগনস্টোন’ দল।

আরো পড়ুন: এনএসইউ প্রযুক্তি উৎসবে চলছে গেইমিং প্রতিযোগিতা

‘সাইবারনটস’ আয়োজনে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হয় জুনিয়র প্রজেক্ট প্রদর্শনী প্রতিযোগিতা। আয়োজনের শেষ দিনে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় ৪৩টি স্কুল ও কলেজের ক্ষুদে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদল। তুলনামূলকভাবে তাদের বয়স কম হলেও তারা অসাধারণ কিছু প্রদর্শনীর মাধ্যমে তাদের সৃজনশীল দক্ষতা খুব সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছিল।

উৎসবের শেষদিন লাইন ফলোয়ার রবোটিক্স প্রতিযোগিতা। এতে অংশগ্রহণ করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আগত ৪০টি দল। এ প্রতিযোগিতায় কালো দাগ দেয়া গতিপথ চিনতে পারবে এমন রোবট বানাতে হয়েছিলো প্রতিযোগীদের।

ব্রিজ ও তীক্ষ্ম বাঁকযুক্ত একটি গোলকধাঁধা স্বচালিত রোবট যানকে লাইনের বাইরে না গিয়ে অতিক্রম করতে হয়েছে পুরো পথটি। প্রতিযোগিতায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আগত দল ‘সাস্টেইয়ান’ আরেক ফাইনালিস্ট ‘টেকনো রেক্স’কে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়।

আয়োজন সম্পর্কে ক্লাবটির সম্পাদক ফাহাদ ফারুক বলেন, সপ্তাহব্যাপী এই প্রযুক্তি উৎসব সঠিকভাবে আয়োজিত হয়েছে। প্রতিযোগিরা এই আয়োজনের প্রযুক্তির নানা দিক সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন। আগামী বছর আবারও বসবে এই উৎসব।

প্রতিযোগিতায় বিজয়ীরা সর্বমোট প্রায় ৫ লাখ টাকার প্রাইজমানিসহ আকর্ষণীয় সব পুরস্কার পেয়েছে।

 ‘গালা  নাইট’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে  বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে। এই আয়োজন সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে এই ঠিকানায়

তুসিন আহমেদ

*

*