Techno Header Top and Before feature image

মহাকাশ মিশনের অপেক্ষায় সবচেয়ে বড় রকেট

falcon-heavy-techshohor

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: সপ্তাহভর অপেক্ষার পর অবশেষে বিশ্বের সবচেয়ে বড় রকেটের একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যে ফ্যালকন হ্যাভি নামের এ রকেট উৎক্ষেপন করার প্রস্তুতি নিচেছ স্পেসএক্স।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই রকেট মহাকাশে একবার উৎক্ষেপনে ৬৩ হাজার ৮০০ কেজি মালামাল নিয়ে যেতে পারবে। বর্তমানে যা ফালকন নাইনের চেয়ে তিনগুণ বেশি।

স্ট্যাটিক টেস্ট ফায়ার নামের এই পরীক্ষা করা হয় ইঞ্জিনের ক্ষমতা পরীক্ষার জন্য। এতে দেখা হয় প্রতিটি ইঞ্জিন প্রয়োজনীয় ধাক্কা তৈরি করতে পারছে কী না। ১০ সেকেন্ডের এই পরীক্ষায় রকেটটি নিরাপদে বাঁধা থাকে।

পরীক্ষাটি সফল হওয়ায় যারপরনাই আনন্দিত স্পেসএক্সের প্রধান ইলন মাস্ক, অটোমোবাইল কোম্পানি টেসলারও প্রধান নির্বাহী। এক টুইটে তিনি লেখেন, ফ্যালকন হ্যাভির ফায়ারিং টেস্টটি ভালো ছিল। এটি একটি ঝড়ের মতো তৈরি করেছিল। এক সপ্তাহ বা এর আশপাশের যে কোনও সময়ে উৎক্ষেপন করা হবে এটি।

ফ্যালকন হ্যাভিতে তিনটি রকেট বুস্টার আছে। স্পেসএক্স চেষ্টা করছে তিনটিকেই নিরাপদে পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনতে যাতে সেগুলোকে পুনরায় ব্যবহার করা যায়।

ব্যবহার্য রকেটকে সফলতার সঙ্গে পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে স্পেসএক্স। এখন শুধু রকেটের আকার বাড়ানোর দিকে মনোযোগ দিচ্ছে গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি।

মাস্কের স্বপ্ন আগামী ২০২২ সালের মধ্যে মঙ্গলে দুটি কার্গো পাঠানো। তার আশা জীবিত অবস্থাতেই তিনি দেখতে পারবেন মানুষ মঙ্গলে নিয়মিত যাতায়াত করছেন।

অনেক বিশেষজ্ঞই তার স্বপ্নকে উচ্চাভিলাসী বলে আখ্যা দিচ্ছেন। তবে যে গতিতে স্পেসএক্সের গবেষণা এগিয়ে যাচ্ছে ইলন মাস্কই হয়তো সঠিক প্রমাণিত হবেন বলে মনে করনে অনেকে। আর অসম্ভবকে সম্ভব করার অভ্যাস টেসলা প্রধানের একদিনের নয়।

সিএনএন অবলম্বনে এম. রহমান

*

*

আরও পড়ুন