Maintance

প্রয়োজন বুঝে কিনুন সেলফি স্টিক

প্রকাশঃ ১:৪৪ অপরাহ্ন, জুলাই ২, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৩:২৭ অপরাহ্ন, জুলাই ২, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সেলফির জনপ্রিয়তার সঙ্গে সঙ্গে সেলফি স্টিকের চাহিদাও বেড়েছে। পারফেক্ট গ্রুপ ছবি তুলতে বা পেছনে সুন্দর ব্যাকগ্রাউন্ড রেখে ছবি তোলার ক্ষেত্রে সেলফি স্টিকের কোনো বিকল্প নেই।

কোন ধরনের স্টিক কিনলে আপনার জন্য সুবিধা হবে তা জেনে নেওয়াটাও গুরুত্বপূর্ণ। সেলফি স্টিক কেনার আগে যেসব বিষয় মাথায় রাখা প্রয়োজন তা নিয়েই থাকছে আজকের আয়োজন।

আকার : ছোট ফোনের জন্য ছোট স্টিক আর বড় ফোনের জন্য বড় স্টিক ব্যবহার করাই ভালো। নাহলে ফোনের আকার বেশি বড় হয়ে গেলে স্টিকের ফোন হোল্ডারে তা ঠিকমতো আটকাবে না, ফ্রেমিংয়েও ঝামেলা হবে।

বহনযোগ্য কিনা : যতো লম্বা স্টিক ততো ভালো ছবি। কিন্তু কোথাও ঘুরতে গেলে বা হাঁটার সময় লম্বা স্টিক নিয়ে চলাফেরা করা কিছুটা অসুবিধাজনক। সেক্ষেত্রে ভাজঁ করে রাখা যায় এমন স্টিকও কিনতে পারেন। তবে সাধারণ স্টিকগুলোর চেয়ে এর দাম কিছুটা বেশি পড়বে।

আয়না : সেলফির ক্যামেরার চেয়ে ব্যাক ক্যামেরায় তোলা ছবির মান অনেক ভালো হয়। যদি পিছনে থাকা রিয়ার ক্যামেরা দিয়ে সেলফি তুলতে চান সেক্ষেত্রে আয়না যুক্ত সেলফি স্টিক কিনতে পারেন। এতে ক্যামেরার ডিসপ্লে উল্টো দিকে ঘোরানো থাকলেও আয়নায় দেখে ছবির ফ্রেম ঠিক করা যাবে।

রিমোট কন্ট্রোল : আদতে সেলফি স্টিক একটি রিমোট কন্ট্রোল। তবে টাইমার সেট করে বা স্টিকের বাটনে চাপ দিয়ে ছবি তোলা অসুবিধাজনক মনে হলে আলাদা রিমোট কন্ট্রোলও ব্যবহার করতে পারেন। ছোট্ট গোলাকার রিমোটটি দিয়ে দূর থেকেও ছবি তোলা যায়।

মাউন্ট অপশন : সেলফি স্টিকে যদি  ক্যামেরা (গো প্রো) বা ভিডিও ক্যামেরা বসাতে চান তাহলে স্টিকে মাউন্ট অপশন আছে কিনা তা দেখে নিন। এটি আসলে মোটা একটি স্ক্রু যা দিয়ে ক্যামেরার পজিশন ঠিক করা যায়।

লাইফওয়্যার অবলম্বনে আনিকা জীনাত

*

*

Related posts/