ফেইসবুক মার্কেটিংয়ের দরকারি কৌশল

টেক শহর ডেস্ক : ব্যবসায়ের প্রসারে দরকার মার্কেটিং। আর এই ধাপটি হচ্ছে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষকে কেন্দ্র করে। কারণ পণ্যের গ্রাহক তারাই। যদি কম্পিউটারের সামনে বসেই ভার্চুয়াল দুনিয়ার মানুষের কাছে পৌঁছা যায়, তাহলে স্বশরীরে ঘাম ঝরানোর কী দরকার! ফেইসবুক হচ্ছে এমনই একটি অনলাইন মাধ্যম, প্রতিনিয়তই যেখানে অসংখ্য মানুষের চোখ থাকে। এই মাধ্যমটিই কাজে লাগিয়ে মার্কেটিং চালিয়ে যাচ্ছে বুদ্ধিমান প্রতিষ্ঠানগুলো।

যদি নতুন কেউ এই প্লাটফর্মের সুবিধা নিতে চায়, তাহলে দরকারি টিপস জেনেই শুরু করা উচিত।

যেভাবে দৃষ্টি আকর্ষণ করবেন
কোনো বানিজ্যিক সাইটে পোস্টগুলোতে সোশ্যাল প্লাগইন ব্যবহার করা যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে থাকতে পারে ফেইসবুকের লাইক ও শেয়ার বাটন। এর সঙ্গে টুইটার, পিন্টারেস্টের মতো বাটনও থাকতে পারে। যখন কোনো গ্রাহক বা ব্যবহারকারী তার পছন্দের পোস্টটি লাইক বা শেয়ার করবে, এর মাধ্যমে অন্য সব ব্যবহারকারীর নজরে আসবে পোস্টটি। ফলে তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ হবে। এমনো হতে পারে, তারাও আগ্রহী হয়ে গ্রাহক হতে পারে। আবার নতুন অনেকেই সাইট সম্পর্কে পরিচিত হবে।

যদি কোনো পণ্যের সঙ্গে বিশেষ ছাড় থাকে, তাহলে অনলাইনে শেয়ার করার প্রবনতাও বেশি হবে। পাশাপাশি সাইটের ট্রাফিকও বেশি হবে।

Writers Desk
বিভিন্ন মাধ্যমে বিজ্ঞাপন
অনলাইনভিত্তিক বিভিন্ন প্লাটফর্মকে বিজ্ঞাপনের কাজে লাগাতে পারেন। নিজের প্রতিষ্ঠানের নামে একটি ফেইসবুক পেজ খুলেও প্রচারণা চালান। এটা বেশ কাজে দেবে। ধরুন, আপনার প্রতিষ্ঠানের মোটামুটি নাম-ডাক আছে। এর মানে কিন্তু এই না যে, আপনার প্রতিদিনকার হালনাগাদ তথ্য কেউ নিজ দায়িত্বে জেনে নিচ্ছে। যদি ফেইসবুক পেজের মাধ্যমে হালনাগাদ তথ্য, বা নতুন পণ্যের তথ্য নিয়মিত পোস্ট করেন, তাহলে পেজটিতে যুক্ত ব্যবহারকারীরা তা দেখবে। ভালো লাগলে তারা লাইক বা শেয়ার করবে, এভাবে প্রচারণার পরিধি বাড়তেই থাকবে।

পোস্টে যেসব ব্যাপারে নজর রাখবেন
আপনার পোস্ট তখনই কার্যকরী হবে, যখন অল্প কথায় পুরো ধারনাই দিতে পারবেন। তবে এ ক্ষেত্রে সঠিক তথ্য, বানান পোস্টের ভাষার ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। কারণ সচেতন ক্রেতারা যদি পোস্টের লেখা পড়েই খারাপ ধারনা নেয়, তাহলে পণ্যের মান ভালো হলেও তাদের সেদিকে আগ্রহী করা যাবে না।

– ওয়েবসাইট অবলম্বনে তারেক হাবিব

Related posts

*

*

Top