কাছে থাকার যত উপায়!

তাত্ক্ষণিক বার্তা (ইনস্ট্যান্ট মেসেজ) বা চ্যাট স্মার্টফোনের জনপ্রিয় সেবাগুলোর একটি। প্রযুক্তিপ্রেমীরা ঘরে-বাইরে সবখানে এ সেবায় যুক্ত হতে পারছেন। যখন খুশি বন্ধুদের খঁোজও নিতে পারছেন। এ যেন দূরে থেকেও Èভাচর্ুয়াল দুনিয়া’য় কাছে থাকা। এই সেবার পরিধি বাড়ছে দিন দিন। জানাচ্ছেন হাবিবুর রহমান তারেক

মোবাইল ফোনে তাত্ক্ষণিক বার্তা বা চ্যাটের ব্যবহার শুরু হয়েছে অনেক আগেই। তবে স্মার্টফোনের যুগে এসে এ সেবা পেয়েছে নতুন এক মাত্রা। স্মার্টফোনের জনপ্রিয়তার সঙ্গে তাল দিয়ে চ্যাট ব্যবহারকারীদের জন্যও তৈরি হয়েছে বিভিন্ন অ্যাপ। জনপ্রিয় এ সেবায় যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সুবিধা।

চ্যাট সেবায় এখন আর শুধু টেক্সট বার্তা বিনিময়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই, এর সঙ্গে আরো যুক্ত হয়েছে ভয়েস ও ভিডিও কলও। ইন্টারনেটে যুক্ত দুটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারী একজন আরেকজনের সঙ্গে ভয়েস কিংবা ভিডিও কল করতে পারবেন। চাহিদার কথা ভেবে সেবাগুলোর সুবিধায়ও আছে বৈচিতর্্য। আর এসব সেবায় বাড়তি কোনো খরচ না থাকায় ব্যবহারকারীরা লুফে নিচ্ছেন তঁাদের পছন্দের সেবাটি।

 চ্যাটের বহরে যেসব সেবা
টেক্সট, ভয়েস ও ভিডিও চ্যাটের সেবা দিচ্ছে এমন অ্যাপগুলোর বহরে আছে∏Èফেইসবুক মেসেঞ্জার’, Èনিমবাজ’, Èস্কাইপ’, Èভিবার’, Èইবাডি’, Èইয়াহু মেসেঞ্জার’, Èহোয়াটসঅ্যাপ’, Èআই মেসেজ’, Èমিজ৩৩’, Èইমো’ ইত্যাদি। এ সেবাগুলোর মধ্যে কোনো কোনোটি আবার একই সঙ্গে ব্যবহারকারীর বিভিন্ন অ্যাকাউন্টের বন্ধুদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সুযোগও দিচ্ছে। অ্যানড্রয়েড, উইন্ডোজ মোবাইল, ব্ল্যাকবেরি, আইওএস মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমচালিত স্মার্টফোনে এসব অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে। গুগল পে্ল এবং আইটিউনস খঁুজলেই পাওয়া যাবে কাঙ্ক্ষিত এই অ্যাপগুলো। আর এগুলো বিনা খরচেই ডাউনলোড করে স্মার্টফোনে ইনস্টল করা যাবে। যঁাদের স্মার্টফোন নেই, সিমবিয়ান কিংবা জাভা সমর্থিত মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন, তঁারাও বেশ কয়েকটি চ্যাট সেবা ব্যবহার করতে পারবেন। তবে সুবিধার দিক থেকে স্মার্টফোন উপযোগী অ্যাপগুলোই অনেক বেশি এগিয়ে।

 এক অ্যাপেই সবার দেখা
ভাচর্ুয়াল জগতে অনেকেই নিজের নাম লেখান একাধিক ঠিকানায়। অর্থাত্ একজনেরই Èইয়াহু’/Èইয়াহু মেসেঞ্জার’, Èজিমেইল’/Èগুগল টক’, Èফেইসবুক’, Èটুইটার’, Èলাইভ মেসেঞ্জার’, Èস্কাইপ’, Èনিমবাজ’ ইত্যাদির অ্যাকাউন্ট থাকতে পারে। তবে সব ঠিকানায় বা অ্যাকাউন্টে তো আলাদাভাবে লগইন করা হয়ে ওঠে না সব সময়। এর জন্য বাড়তি সময়েরও প্রয়োজন আছে। এ ছাড়া এটি বাড়তি ঝামেলাও মনে হবে অনেকের কাছে। ব্যবহারকারীদের এমন ঝামেলা কমাতে চালু আছে মাল্টিপ্ল্যাটফর্ম মেসেঞ্জার সুবিধাও। স্মার্টফোনের জনপ্রিয়তার কারণে এসব মাল্টিপ্ল্যাটফর্ম মেসেঞ্জার সেবার কম্পিউটার ও ওয়েব সংস্করণের পাশাপাশি ট্যাব, স্মার্টফোন ও মোবাইল ফোন উপযোগী সংস্করণও পাওয়া যাচ্ছে। এ ধরনের জনপ্রিয় মেসেঞ্জারগুলোর তালিকায় আছে Èনিমবাজ’ ও Èইবাডি’। নিমবাজে লগইন করে ব্যবহারকারী Èফেইসবুক’, Èজিমেইল’/Èগুগল টক’, Èইয়াহু মেসেঞ্জার’সহ আরো কয়েকটি অ্যাকাউন্টকে Èনিমবাজ’ অ্যাকাউন্টের সঙ্গে যুক্ত করতে পারবেন। এর ফলে শুধু নিমবাজে লগইন করেই অন্যান্য অ্যাকাউন্টের (Èফেইসবুক’, Èজিমেইল’/Èগুগল টক’, Èইয়াহু মেসেঞ্জার’) সব বন্ধুর সঙ্গেই চ্যাট বা কথা বলতে পারবেন। অর্থাত্ এক অ্যাপেই একসঙ্গে পাওয়া যাবে সব অ্যাকাউন্টের বন্ধুদের।

 যেভাবে যুক্ত থাকবেন
ধরুন, নিমবাজ লগইন করবেন। এর জন্য ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড প্রবেশ করাতে হবে। যদি আপনার এই অ্যাকাউন্ট না থাকে, তাহলে www.nimbuzz.com/en/create-account ঠিকানা থেকে নতুন অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। আর যঁাদের এই সফটওয়্যার বা অ্যাপটি ইনস্টল করা আছে, তঁারা সফটওয়্যারটি চালু করলেই নতুন অ্যাকাউন্ট খোলার অপশন দেখতে পাবেন।

অ্যাকাউন্ট খোলার ধাপ শেষ হলে নিমবাজে লগইন করুন। এরপর Èঅ্যাড কনটাক্ট’ ক্লিক করে আপনার সঙ্গে নতুন বন্ধুদের যুক্ত হওয়ার Èঅনুরোধ’ পাঠাতে পারবেন। তবে আপনার অন্যান্য অ্যাকাউন্টের (Èফেইসবুক’, Èজিমেইল’/Èগুগল টক’, Èইয়াহু মেসেঞ্জার’, Èলাইভ মেসেঞ্জার’ ইত্যাদি) সঙ্গে যুক্ত করতে Èঅ্যাড অ্যাকাউন্ট’ ক্লিক করতে হবে। এরপর সেসব অ্যাকাউন্টের আইডি ও পাসওয়ার্ড প্রবেশ করাতে হবে। এ ধাপটি সম্পন্ন হওয়ার পর সেসব অ্যাকাউন্টে থাকা বন্ধুদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে চ্যাট বা কথা বলতে পারবেন। মজার ব্যাপার হলো, ফ্রেন্ড বা কন্টাক্ট তালিকায় থাকা কোন বন্ধুটি সর্বশেষ কখন অনলাইনে ছিল, সেই সময়ও জানতে পারবেন।

খরচ নেই, আবার আছেও
অ্যাপগুলোতে Èনেট টু নেট’ (উভয় প্রানে্তর ব্যবহারকারীই ইন্টারনেটে যুক্ত) বার্তা বিনিময় কিংবা ভয়েস/ভিডিও কলে কোনো খরচ নেই। এর জন্য শুধু ইন্টারনেট ব্যবহারের খরচ গুনতে হবে। এ ছাড়া আর কোনো বাড়তি খরচ নেই বললেই চলে।

তবে নেট টু ফোনের ক্ষেত্রে খরচ হবে। অর্থাত্ ইন্টারনেটে যুক্ত অবস্থায় অ্যাপের মাধ্যমে একজন ব্যবহারকারী অন্য আরেকজন সাধারণ মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীকে (যিনি ইন্টারনেটে যুক্ত নন) ফোন করতে নির্ধারিত চার্জ গুনতে হবে। স্কাইপসহ বেশ কিছু সেবায় এ সুবিধা পাওয়া যাবে। কেউ চাইলে খরচের তালিকা দেখে ক্রেডিট কিনে (ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে) পেতে পারেন এ সেবা।

কোথায় পাবেন
তাত্ক্ষণিক বার্তা, ভয়েস ও ভিডিও সেবার পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অ্যাপগুলো বিনা খরচেই ইন্টারনেট থেকে নামিয়ে বা ডাউনলোড করা যাবে। স্মার্টফোন থেকে অ্যাপস্টোরগুলোতে (https://play.google.com/store, https://itunes.apple.com/en/) খঁুজলেই পাবেন অ্যাপগুলোর হালনাগাদ সংস্করণ।

এ ছাড়া কম্পিউটারের মাধ্যমে ডাউনলোড করে স্মার্টফোনে অ্যাপ স্থানান্তর করে নিয়েও তা ইনস্টল করা যাবে।

নিমবাজের স্মার্টফোন ও মোবাইল সংস্করণ পাওয়া যাবে এই লিংKÑwww.nimbuzz.com/en।ে www.skype.com/en/download-skype/skype-for-mobile/ লিংকে গেলে পাবেন স্কাইপের স্মার্টফোন সংস্করণ। স্মার্টফোনে ফেইসবুক মেসেঞ্জার ইনস্টল করা যাবে এই লিংক থেকে∏www.facebook.com/mobile/messenger। স্মার্টফোন উপযোগী ইয়াহু মেসেঞ্জার সংস্করণ পেতে ক্লিক করুন এ লিংকটিতে∏http://mobile.yahoo.com/messenger/android। অ্যানড্রয়েডের পাশাপাশি স্মার্টফোনের অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম উপযোগী Èভিবার’ পাবেন এই লিংকে∏http://www.viber.com/।

Related posts

*

*

Top