Maintance

ডেটা আর কথার সোনালী বছর

প্রকাশঃ ৩:৫৪ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১০:৫০ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৭

জামান আশরাফ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: শেষ হতে চলা ২০১৭ সালটি যেন ডিজিটাল সংযোগ স্থাপনের বিবেচনায় স্বর্ণোজ্জ্বল একটি বছর। শুধু চলতি বছরের ১১ মাসে দেশে এক কোটি ৩৫ লাখেরও বেশি ইন্টারনেট সংযোগ বেড়েছে।

এর আগে এক ক্যালেন্ডার বছরে কখনো দেশে এত ইন্টারনেট সংযোগ বাড়েনি। এ সময়ে ডেটার ব্যবহার এ থেকে আয়ও বেড়েছে বিপুল। তবে ইন্টারনেট বৃদ্ধির এ হারকে চমক বলছেন না সংশ্লিষ্টরা।

শুধু ইন্টারনেট সংযোগ নয়, কার্যকর সিম সংযোগের ক্ষেত্রেও দৃশ্যমান উন্নতি হয়েছে। এর আগের বছর বায়োমেট্টিক নিবন্ধনের কারণে ঝরে যাওয়া মোবাইল সংযোগেরও অনেকটা ফিরে এসেছে চলতি বছর। ফলে ২০১৭ সালে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো সব মিলে এক কোটি ৬৭ লাখ কার্যকর সিম বাড়াতে পেরেছে।

সে কারণেই দুই বিবেচনাতেই শেষ হতে চলা বছরটিকে টেলিযোগাযোগ খাতের জন্য বিশ্লেষকরা আলোচিত বছর হিসেবে বলছেন।

২০১৬ সালে দেশে ইন্টারনেট সংযোগ বেড়েছিল এক কোটি ২৫ লাখ তিন হাজার। এতে ছয় কোটি ৬৬ লাখ কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগ নিয়ে ২০১৭ শুরু হয়।

নভেম্বরের শেষে এসে দেশে কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগ সংখ্যা এসে দাঁড়িয়েছে আট কোটি এক লাখ ৬৬ হাজার। এর মধ্যে শুধু মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত আছে সাত কোটি ৭৩ লাখ ৩৬ হাজার সিম।

শেষ হতে চলা বছরটিতে প্রতিদিন ৪০ হাজারের ৪২৬ কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগ বেড়েছে।

মোবাইল ও ব্রডব্যান্ড দুই খাতেই যেহেতু সংযোগ অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে, তাই ইন্টারনেট ডেটার ব্যবহারও অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।

বছরটি যখন শুরু হয়, তখন ইন্টারনেট ডেটার ব্যবহার ছিল ৩৮০ জিবিপিএস। এখন সেটি চলে এসেছে ৫২৬ জিবিপিএস-এ।

২০১৭ সালে নতুন ডিজিটাল সেবাও নানা প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হওয়ার কারণে ডেটা ব্যবহারে এমন উর্ধ্বগতি এসেছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

অন্যদিকে বছর শেষে মোট কার্যকর মোবাইল সিমের সংখ্যা ১৪ কোটি ৩১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এ বছর প্রতিদিন ৫০ হাজার কার্যকর সিম বৃদ্ধি পেয়েছে।

এতে ডেটার পাশাপাশি কথা বলা থেকেও মোবাইল ফোন অপারেটরদের আয় আগের তুলনায় বেড়েছে।

আগের চেয়ে মানুষ অনেক বেশি ইন্টারনেটে সংযুক্ত থাকার কারণে দেশের ডিজিটাইজেশনের গতিও বাড়ছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

টেলিকম খাতে ২০১৭ সালের আলোচিত আরেকটি ঘটনা হলো চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি) সেবা পাওয়ার খুব কাছাকাছি চলে এসেছেন গ্রাহকরা।

ফোরজির নীতিমালায় নানা পরিবর্তনের পর সেটি ধরে এখন দরপত্র আহবান এবং অন্যান্য পদক্ষেপের কাজ এগিয়ে চলছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই দেশের মানুষ ফোরজি মোবাইল ডেটা ব্যবহার করতে পারবেন।

একইভাবে ১০ বছর ধরে আলোচনায় থাকা মোবাইল নাম্বার পোর্টাবিলিটি বা নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর বদলের সেবা প্রাপ্তির দ্বারও অনেকটাই উম্মোচিত হয়েছে।

ইতিমধ্যে একটি কোম্পানিকে লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে এবং এপ্রিল মাসের মধ্যে তারা সেবা নিয়ে আসতে পারবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

*

*

Related posts/