Maintance

বাংলালিংকে কমছে কথা, বাড়ছে ডেটা

প্রকাশঃ ১:৫৮ অপরাহ্ন, আগস্ট ১৫, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:০১ অপরাহ্ন, আগস্ট ১৫, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলালিংক নেটওয়ার্কে গ্রাহকদের কথা বলার পরিমাণ কমেছে। তবে বাড়ছে ডেটার ব্যবহার। এ বিপরীত অবস্থার মধ্যে অপারেটরটি দ্বিতীয় প্রান্তিকের আয়ে বেশ বড় ধাক্কা খেয়েছে।

এপ্রিল-জুন প্রান্তিকে অপারেটরটির আয় কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৯৫ কোটি ১২ লাখ টাকা। সর্বশেষ আট প্রান্তিকের মধ্যে এটি সর্বনিন্ম আয়।

সম্প্রতি অপারেটরটির মূল কোম্পানি ভিওনের এপ্রিল-জুন প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদনে পাওয়া গেছে এ তথ্য।

Banglalink-logo-techshohor

প্রকাশিত প্রতিবেদনের পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে দেখা গেছে, বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের এ সময়ে বাংলালিংকের  গ্রাহকপ্রতি কথা বলার পরিমান মাসে দাঁড়িয়েছে ২৮৫ মিনিট। অথচ এর আগের প্রান্তিকেরও এটি ছিল ৩০৫ মিনিট।

গত বছরের অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকেও একজন গ্রাহক গড়ে মাসে ৩২২ মিনিট কথা বলেছেন। একই অবস্থা ছিল এর আগের প্রান্তিকেও।

এমন নেতিবাচক খবরের মধ্যে অপারেটরটির জন্য ইতিবাচক খবর হলো তাদের ডেটার ব্যবহার লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। সর্বশেষ প্রান্তিকে ইন্টারনেট সংযোগ আছে এমন গ্রাহক মাসে ৩৬৪ মেগাবাইট ডেটা খরচ করেছেন।

জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে প্রতি ইন্টারনেট সংযোগের বিপরীতে ডেটার ব্যবহার ছিল ৩০৪ মেগাবাইট।

ডেটার এ ব্যবহার বৃদ্ধির কারণে এ থেকে অপারেটরটির আয়ও অনেক বেড়েছে। দ্বিতীয় প্রান্তিকে ডেটার আয় দাঁড়িয়েছে ১৫৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। ঠিক আগের প্রান্তিকে যা ছিল ১৫২ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।

ডেটাতে ভালো করলেও সামাগ্রিকভাবে বাংলালিংকের আয় দ্বিতীয় প্রান্তিকে অনেকটা কমেছে।

বছরের প্রথম প্রান্তিকে বাংলালিংকের মোট আয় ছিল এক হাজার ২০০ কোটি ৬৫ লাখ টাকা।

ভিওনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পুনঃনিবন্ধনের কারণে বাংলালিংক ৩৮ লাখ গ্রাহক হারিয়েছে। এটির নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে আয়ে।

*

*

Related posts/