Maintance

মোবাইল ভার্চুয়াল নেটওয়ার্ক সেবা মিলবে দেশেও

প্রকাশঃ ৪:৫৪ অপরাহ্ন, আগস্ট ৪, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১:২৬ অপরাহ্ন, আগস্ট ৫, ২০১৭

জামান আশরাফ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মোবাইল ভার্চুয়াল নেটওয়ার্ক সেবা বা এক অপারেটরের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে অন্য নতুন অপারেটরের গ্রাহক সেবা দেওয়ার পদ্ধতি দেশে চালুর জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে সরকার।

মোবাইল ভার্চুয়াল নেটওয়ার্ক অপারেটর (এমভিএনও) নামে পরিচিত নতুন ধরনের এ সেবা দেশের টেলিকম খাতে চালুর বিষয়ে একটি নীতিমালা তৈরির কাজও শুরু করেছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগ।

টেলিকম সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে পরপর দুটি বৈঠকে সম্প্রতি এ সেবা চালু করতে তাগাদা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

MVNO-Mobile-Virtual-Network-Operator-techshohor

এমভিএনও হলো একটি মোবাইল ফোন অপারেটরের কাছ থেকে বড় আকারের কল মিনিট কিনে নেয় অন্য একটি কোম্পানি। এর পর সেই কোম্পানি কল মিনিট গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করে।

কল মিনিট কিনে নেওয়া এ কোম্পানির মোবাইল অপারেটরের লাইসেন্সের প্রয়োজন নেই। তবে নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছ থেকে এ জন্য অনুমোদন নিতে হবে। এটির একটি ব্র্যান্ডনেমও থাকবে।

ইউরোপসহ অনেক উন্নত দেশে এ সেবা আছে। গ্রাহক থার্ড পার্টি এ ব্র্যান্ডের কাছ থেকে সেবা কিনলেও তিনি হয়ত বুঝতেই পারেন না, কোন অপারেটরের সেবা ব্যবহার করছেন।

দেশে এমভিএনও চালুর বিষয়ে বিটিআরসি ও মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো এরই মধ্যে বৈঠকও করেছে। তবে অপারেটরগুলো এ সেবার বিষয়ে আপত্তি জানাচ্ছে।

অপারেটরগুলোর কর্মকর্তারা বলছেন, এমনিতেই দেশের মোবাইল সেবার বাজারে নানা ধরনের জটিলতা রয়েছে। নতুন এ সেবা চালু করা হলে জটিলতা আরও বাড়বে। এ কারণে তারা এখনই এমভিএনও চালুর পক্ষে নন।

এদিকে সরকারের নীতিনির্ধারকদের নির্দেশনা পেয়ে নীতিমালা তৈরির জন্য একটি কমিটি করা হয়েছে। কমিটির সদস্যরা  অন্য দেশের সেবা এবং লাইসেন্সিংয়ের শর্তগুলো পর্যালোচনা করে সে অনুসারে একটি খসড়া তৈরি করবে।

তবে এ জন্য কিছুটা সময় লাগবে বলেও জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা।

এমভিএনও সেবার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা অপারেটরগুলোকে নেটওয়ার্ক শেয়ারিংয়ের ওপরও জোর দিয়েছেন। সে বিষয়েও বিটিআরসি কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

*

*

Related posts/