Maintance

ফেরত স্পেকট্রাম কাজেই লাগাতে পারছে না সিটিসেল

প্রকাশঃ ২:৫৫ অপরাহ্ন, জুলাই ২৮, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:০৮ পূর্বাহ্ন, জুলাই ৩০, ২০১৭

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আদালতের রায়ে স্পেকট্রাম ফেরত পেলেও তা গ্রাহক সেবায় ব্যবহার করতে পারছে না মোবাইল ফোন অপারেটর সিটিসেল।

অপারেটরটির কর্মকর্তারাই বলছেন, অপারেটরটির স্পেকট্রাম ব্যবহারের মতো বিন্দুমাত্র স্বক্ষমতা অবশিষ্ট নেই।

তারপরও মালিক পক্ষের জন্য এটি একটি মনস্তাত্মিক জয় উল্লেখ করে তারা জানাচ্ছেন, দেশের সবচেয়ে পুরোনো অপারেটরটির আর অবকাঠামো বলতে কিছুই অবশিষ্ট নেই। সে কারণে এই স্পেকট্রাম তাদের কোনো কাজেই আসবে না।

অপারেটরটির সাবেক ও বর্তমান শীর্ষ কর্মকর্তারা বলছেন, সব বিটিএস তাদের হাতে বাইরে। কোথাও  বিটিএসের বিদ্যুৎ সংযোগও নেই কারণ দীর্ঘ দিন ধরে বিল দেওয়া হয় না। ওই সব বিটিএস যেসব বাড়িতে আছে সেখানেও তারা যেতে পারবেন না যেহেতু বছরের পর বছর ভাড়া দেওয়া হয় না।

তাছাড়া বিটিএসগুলোও কয়েক বছর ধরে পরিচর্যা না করায় অকেজো হয়ে গেছে।

citycell_techshohor

তাদের মতে, স্পেকট্রাম ফেরত পাওয়ায় এখন মালিক পক্ষ এটি বিক্রি করার জন্য কার্যকর উদ্যোগ নিতে পারবে। আর স্পেকট্রাম ফেরত পাওয়ার মাধ্যমে লাইসেন্সও এখন রক্ষা করা সম্ভব হল।

গত মঙ্গলবার সর্বোচ্চ আদালত প্যাসিফিক টেলিকম লিমিটেডকে স্পেকট্রাম ফিরিয়ে দিতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থাকে (বিটিআরসি) নির্দেশ দেন।

আর তার প্রেক্ষিত্রে ওই রাতেই সিটিসেলকে স্পেকট্রাম ফেরত সংক্রান্ত একটি চিঠি দেয় বিটিআরসি।

বিটিআরসির স্পেকট্রাম বিভাগের পরিচালক লে. কর্নেল সুফি মোহাম্মদ মঈনউদ্দিন স্বাক্ষরিত চিঠিটি সিটিসেলের কাছে পাঠানো হয়। ওই চিঠিতে সিটিসেলের স্পেকট্রাম এবং তাদের রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি লাইসেন্স ব্যবহারে পুনঃঅনুমতি দেওয়া হয়েছে।

তবে এর আগে সোমবার সিটিসেলের লাইসেন্স বাতিলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয় বিটিআরসি। প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে অনুমোদনের প্রেক্ষিতেই তারা অপারেটরটির লাইসেন্স বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

পুরোনো বকেয়া পরিশোধ না করা, আদালতের নির্দেশ অনুসারে চলতি দেনা যেমন স্পেকট্রাম এবং লাইসেন্স ফি পরিশোধ না করায় জুনের প্রথম দিকে বিটিআরসি অপারেটরটির লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ করে সরকারের কাছে।

তার আগে কেনো লাইসেন্স বাতিল করা হবে না সে বিষয়ে সিটিসেলকে কারণ দর্শানো নোটিশও পাঠায় বিটিআরসি।

২০১৬ সালের ২০ অক্টোবর বিটিআরসি সিটিসেলের স্পেকট্রাম বরাদ্দ স্থগিত করে দেয়। তখন অবশ্য সিটিসেল সুপ্রিম কোর্টে আপিল করলে ৬ নভেম্বরে সিটিসেলের স্পেকট্রাম ফিরিয়ে দেয়া হয়। তবে তাদের এখন আর কোনো গ্রাহক নেই।

*

*

Related posts/