Maintance

মার্জার সার্টিফিকেট না নিয়েই ফিরেছেন আজিয়াটা প্রধান

প্রকাশঃ ২:৩৯ অপরাহ্ন, জুন ৯, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:৪১ অপরাহ্ন, জুন ৯, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রবি-এয়ারটেল একীভূতকরণের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি ‘অর্ডার অব মার্জার লাইসেন্স’ না নিয়েই ফিরে গেছেন আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদের এমডি, প্রেসিডেন্ট ও গ্রুপ চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার জামালুদ্দিন ইব্রাহিম।

বুধবার রাতে একদিনের সফরে ঢাকায় এসেছিলেন রবির মূল কোম্পানি আজিয়াটার এই শীর্ষ কর্মকর্তা। বৃহস্পতিবার দিন শেষে তিনি ফিরে যান।

আর বৃহস্পতিবারই টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির কাছ থেকে ‘অর্ডার অব মার্জার অব লাইসেন্স’ পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিটিআরসির চেয়ারম্যান দেশে না থাকা এবং আরও কিছু কারণে এই লাইসেন্স দেয়া যায়নি।

একীভূতকরণের পর রবির ব্যবস্থাপনা পরিষদ ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পর্যালোচনা, নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে আলাপসহ গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাজে সংক্ষিপ্ত সফরে ঢাকায় এসেছিল আজিয়াটার শীর্ষ কর্মকর্তার নেতৃত্বে এই প্রতিনিধি দলটি।

দলটি টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের সঙ্গে বৈঠক করে। এ সময় প্রতিমন্ত্রীর কাছে এয়ারটেলের সঙ্গে একীভূতকরণের পর রবির অগ্রগতি তুলে ধরেন আজিয়াটার প্রধান।

বৈঠকে ছিলেন আজিয়াটার দক্ষিণ এশিয়ার রিজিওনাল সিইও ড. হানস বিজয়সুরিয়া, রবির ম্যনেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, আজিয়াটা গ্রুপর চিফ কর্পোরেট অফিসার মোহাম্মদ ইধাম নাওয়াউই ও রবির চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ।

আজিয়াটা প্রধান রবির ব্যবস্থাপনা পরিষদ ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে রবির ব্যবসায়িক কার্যক্রম পর্যালোচনা করেন। তখন আরও কর্মকর্তাদের মধ্যে ছিলেন আজিয়াটা গ্রুপ চিফ ফিনান্সিয়াল অফিসার বিবেক সুদ, গ্রুপ চিফ বিজনেস অপারেশন্স অফিসার মোহাম্মদ আসরি হাসান সাবরি, গ্রুপ চিফ এইচআর অফিসার ডারকি এম সানি, গ্রুপ চিফ ট্যালেন্ট অফিসার দাতিন বদরুন্নিসা মো. ইয়াসিন খান, গ্রুপ চিফ টেকনোলজি অফিসার আমানদীপ সিং এবং গ্রুপ চিফ স্ট্র্যাটেজি অফিসার ডমিনিক পল অ্যারেনা।

রবিকে পরবর্তী প্রজন্মের ডিজিটাল কোম্পানিতে রূপান্তরে রবি একসেলারেটেড ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের সদস্যরা অপারেটরটিকে ডিজিটাল কোম্পানি হিসেবে গড়ে তোলার জন্য তাদের কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন।

অাল-আমীন দেওয়ান

*

*

Related posts/