Maintance

বাড়তি শুল্কে বিশৃঙ্খল হবে হ্যান্ডসেটের বাজার

প্রকাশঃ ৮:৩২ অপরাহ্ন, জুন ৩, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৩:৪১ অপরাহ্ন, জুন ৪, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মোবাইল হ্যান্ডসেটের আমদানি শুল্ক দ্বিগুণ করার ফলে খাতটিতে চোরাচালান উৎসাহিত হবে বলে মনে করছে বাংলাদেশ মোবাইল ফোন আমদানিকারক অ্যাসোসিয়েশন (বিএমপিআইএ)।

সংগঠনটি বলছে এর ফলে সরকার বিপুল পরিমান রাজস্ব হারাবে এবং বৈধ আমদানিকারকরা ব্যবসায় টিকে থাকতে পারবে না। এছাড়া বাড়তি দামের কারণে দেশের সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাবে এই প্রয়োজনীয় ডিভাইসটি। স্মার্টফোনের পেনিট্রেশন কমবে, এতে ইন্টারনেটের সম্প্রসারণও শ্লথ হবে।

শনিবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে হ্যান্ডসেট আমদানিকারকদের সংগঠনটি জানায়, দেশে ৩ হাজার টাকা বা এর কম দামের হ্যান্ডসেট ব্যবহার করে ৫০ শতাংশ মানুষ। ২ হাজার টাকায় সাধারণ মানুষের কাছে যে হ্যান্ডসেট দেয়ার প্রচেষ্টা তা বাধাগ্রস্ত হবে।

বর্তমানে বাংলাদেশে মোবাইল ফোনের কোনো উৎপাদন বা সংযোজন শিল্প নেই। পুরোটাই আমাদানি নির্ভর উল্লেখ করে লিখিত বিবৃতিতে সংগঠনটির সভাপতি রুহুল আলম আল মাহবুব বলেন, `বিএমপিআইএর অনেক সদস্য দেশে মোবাইল হ্যান্ডসেট শিল্প স্থাপনে আগ্রহী। সরকার এবার মোবাইল খুচরা যন্ত্রাংশের এইচএস কোড প্রণনয়ন করেছেন। দেশে এখন এই খাতে দক্ষ শ্রমিকের অভাব আছে। এছাড়া শিল্প স্থাপনে প্রয়োজন গবেষণা, বাজার পরিকল্পনা। এসব প্রস্তুতির জন্য কমপক্ষে ১ বছর সময় প্রয়োজন।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনটির সিনিয়র সহ-সভাপতি রাকিবুল কবির, সহ-সভাপতি আমিনুর রশীদ, সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ানুল হক, যুগ্ম-সম্পাদক মোহাম্মদ মেসবাহ উদ্দিন, সহকারি যুগ্ম-সম্পাদক জয়নাল আবেদিনসহ আরও নেতারা।

২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে সেলুলার টেলিফোন সেটের আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। যা আগে ছিল ৫ শতাংশ।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

Related posts/