Maintance

ইন্টারনেটের দাম নিয়ে ‘অপপ্রচার’ ঠেকানোর বিজ্ঞাপন অপারেটরগুলোর

প্রকাশঃ ১০:৩০ অপরাহ্ন, এপ্রিল ২৭, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১০:৩০ অপরাহ্ন, এপ্রিল ২৭, ২০১৭

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইন্টারনেটের মূল্যসংক্রান্ত একটি সংবাদপত্রের প্রতিবেদনকে অপপ্রচার উল্লেখ করে সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিচ্ছে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো।

শুক্রবারের সকল জাতীয় দৈনিকে বিজ্ঞাপনটি ছাপা হবে। মূলত বুধবার টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারনা হালিম একটি বৈঠকে অপারেটরগুলোকে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন ছাপানোর নির্দেশনা দেন।

বিজ্ঞাপনে খুচরা পর্যায়ে ইন্টারনেটের মূল্য কমানোর বিষয়ে নানা তথ্য থাকছে। যেখানে বলা হচ্ছে, ‘ইন্টারনেটের মূল্যের দিক হতে বাংলাদেশ এখন দ্বিতীয় সর্বনিম্ন  দেশ।

internet ad

অপারেটরগুলোর সংগঠন অ্যামটবের নামে যাওয়া বিজ্ঞাপনটিতে বলা হচ্ছে, থ্রিজি চালুর আগে দেশে এক এমবিপিএস গতির এক জিবি ডেটার মূল্য ছিল এক হাজার টাকা যা এখন মাত্র দুইশ টাকায় নেমে এসেছে।

২০০৯ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে প্রতি মেগাবাইট ডেটা ব্যবহারের খরচ ৯৩ শতাংশ কমেছে বলেও এতে বলা হয়েছে। তখন প্রতি মেগাবাইট ডেটার গড় মূল্য ছিল তিন টাকা ৮৯ পয়সা যা এখন মাত্র ২৮ পয়সা-বলছে অ্যামটব।

তারা বলছেন, ইন্টারনেটের মূল্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে ব্যান্ডউইথের খরচের ভূমিকা অতি সামান্য।এর মূল্য-খরচ নির্ভর করে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর নেটওয়ার্কের উপর যার সঙ্গে লাইসেন্স ফি, তরঙ্গ চার্জ, নেটওয়ার্ক স্থাপনের ব্যয়, অপটিক্যাল ফাইবারের খরচ, রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয়, চ্যানেল কমিশন ও প্রণোদনা ব্যয় রয়েছে।

এর বাইরে প্রতি এক’শ টাকা ইন্টারনেট ব্যবহারে ২১ দশমিক ৭৫ শতাংশ চলে যায় ভ্যাট, সম্পূরক শুল্ক এবং সারচার্জ হিসেবে। বিজ্ঞাপনে অপারেটরগুলো তাদের লক্ষাধিক কোটি টাকা বিনিয়োগের হিসাবও তুলে ধরেন।

*

*

Related posts/