Maintance

৪ জি আনতে তৈরি হচ্ছে ৩ মোবাইল অপারেটর

প্রকাশঃ ৩:৫৪ অপরাহ্ন, মার্চ ১৫, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৩:৫৪ অপরাহ্ন, মার্চ ১৫, ২০১৭

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দ্রুত গতির ইন্টারনেট ব্যবহারের চতুর্থ প্রজন্মের প্রযুক্তি চালু করতে প্রস্তুতি শুরু করেছে বড় তিন মোবাইল ফোন অপারেটর।

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের বিটিআরসির কাছ থেকে লাইসেন্স পাওয়া মাত্রই ৪ জি সেবা দিতে নিজেদের এগিয়ে রাখছে অপারেটরগুলো। তবে রাষ্টায়ত্ত কোম্পানি টেলিটক এক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়েছে।

কারিগরি দিকগুলো গুছিয়ে নেওয়ার অংশ হিসেবে কিছু দিন আগে গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংক মহড়াও দিয়েছে। দেশের অধিকাংশ জায়গায় ইতিমধ্যে তাদের নেটওয়ার্ক তৈরি হয়ে গেছে।

4g-techshohor

এ পরীক্ষায় অপারেটরগুলো ডেটা আপলোড ও ডাউনলোড উভয় ক্ষেত্রেই বেশ উচ্চ গতি পেয়েছে, যা থ্রি জি নেটওয়ার্কের চেয়ে বহু গুণ বেশি।

অপারেটরগুলোর কর্মকর্তারা বলছেন, অনুমোদন পাওয়ার পর খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তারা গ্রাহকদেরকে ৪ জি সংযোগ দিতে পারবেন।

প্রস্তুতির অংশ হিসেবে রবি সব সিম কার্ড ফোর জি উপযোগী করার কাজ শুরু করেছে। নতুন সেবার লাইসেন্স পাওয়া মাত্র তারা চতুর্থ প্রজন্মের নেটওয়ার্কে ঢুকতে চায়। এ জন্য অবশ্য গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতি সিমে ১০০ টাকা করে নিচ্ছে।

সিম ফোর জি উপযোগী করতে বিটিআরসির কাছে অনুমতি চেয়েছে বাংলালিংকও।

অন্যদিকে গ্রাহক বিচারে শীর্ষ অপারেটর গ্রামীণফোন গত বছর ঘোষণা করেছে, চতুর্থ প্রজন্মের নেটওয়ার্ক চালু করতে তারাও প্রস্তুত। ইতিমধ্যে তাদের ১১ হাজার সাইটকে ৩ জি নেটওয়ার্কের জন্য তৈরি করেছে, যেগুলো ৪ জি নেটওয়ার্ক হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে।

গত মাসে এক বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় যত দ্রুত সম্ভব দেশে ৪ জি চালু করার নির্দেশনা দেন। তারপর নীতিমালা তৈরির কাজও শুরু করেছে বিটিআরসি।

মূলত উপদেষ্টার ঘোষণা মোবাইল অপারেটরদের প্রস্তুতিতে গতি এনেছে। যদিও তারা গত বছর থেকেই এ জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছিল।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, তাদের একটি কমিটি এ বিষয়ে কাজ শুরু করেছে। এ নীতিমালার বিষয়ে একটি বৈঠকও হয়েছে।

এ নীতিমালায় যেসব অপারেটরের ৩ জি লাইসেন্স রয়েছে সেগুলো নতুন লাইসেন্স পাওয়ার উপযুক্ত বিবেচিত হবে বলে জানান তিনি।

বড় তিন অপারেটরের বাইরে রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি টেলিটকেরও ৩ জির লাইসেন্স আছে। তবে ৪ জির বিষয়ে টেলিটকের প্রস্তুতির বিষয়ে কিছুই জানা যায়নি।

*

*