Maintance

এয়ারটেলের প্যাকেজ অনুমোদন করছে না বিটিআরসি

প্রকাশঃ ২:৫৩ অপরাহ্ন, মার্চ ১৩, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:৫৫ অপরাহ্ন, মার্চ ১৩, ২০১৭

আল-আমীন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : এয়ারটেলের প্যাকেজ অনুমোদন করছে না টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

রবির সঙ্গে একীভূত হওয়া কোম্পানিটির জন্য একটি প্যাকেজ অনুমোদনের আবেদন আটকে দিয়েছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থার সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগ। কমিশনের আইন বিভাগ এ অনুমোদন না দিতে পরামর্শ দেয়।

এর আগে ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন বিভাগও অপারেটরটির  কিছু যন্ত্রপাতি আমদানির জন্য অনাপত্তি (এনওসি) অনুমোদন করেনি।

robi-airtel

এসব বিষয়ে জানতে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে রবির জনংসযোগ বিভাগ সাড়া দেয়নি।

বিটিআরসি মনে করছে, এয়ারটেল ও রবি একীভূতকরণ হওয়ায় এখন এয়ারটেলের প্যাকেজ অনুমোদনের সুযোগ নেই। কেননা কোম্পানি নিবন্ধকের কার্যালয়ে একীভূতকরণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ায় দেশে এয়ারটেল নামে পৃথক কোম্পানি থাকার কথা নয়। তাই এয়ারটেলের নতুন প্যাকেজ অনুমোদন না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইন বিভাগ।

প্যাকেজের বিষয়টি সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিস বিভাগ অনুমোদন করে। এ জন্য আইন বিভাগ সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগকে বলেছে তাদের অনুমোদন না নিয়ে কোনো প্যাকেজের অনুমোদন না দিতে।

একইভাবে ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন বিভাগও যন্ত্রপাতি আমদানির অনুমোদন আটকে দিয়েছে আইন বিভাগের কথা অনুসারে।

বিটিআরসি বলছে, অর্ডার অব মার্জার লাইসেন্স না হওয়া পর্যন্ত এয়ারটেলের কিছুর অনুমোদন হবে না।

এদিকে শত কোটি টাকার বেশি বকেয়া পরিশোধ ও স্পেকট্রামসহ কয়েকটি শর্ত পূরণে গরিমসির মাধ্যমে একীভূতকরণ চূড়ান্ত করার বিষয়টি এখনও ঝুলিয়ে রেখেছে শীর্ষস্থানীয় অপারেটর রবি। যদিও মোবাইল ফোন সেবাসহ যাবতীয় কার্যক্রম চলছে একক কোম্পানি হিসেবে। এটিকে নিয়মে ব্যতয় হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা।

একীভূতকরণের পর গ্রাহক সংখ্যার বিচারে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম অপারেটরে পরিণত হওয়া রবিকে গত মাসে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) শর্ত পূরণের সব তথ্য জানাতে ১০ দিন সময় বেধে দেয় ।

পাওনা পরিশোধের পাশাপাশি ছয়টি শর্তের বিস্তারিত উল্লেখ করে এ চিঠিতে শর্ত প্রতিপালনের তথ্য জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়। তা না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানানো হয়।

তবে নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেলেও সব শর্ত পূরণের বিস্তারিত তথ্য জানায়নি অপারেটরটি। কৌশলে চিঠির জবাব দিয়েছে তারা।

এমনকি রবি একীভূতকরণের পর কমিশনের অন্যতম দুই শর্ত স্পেকট্রাম চার্জ ও একীভূতকরণ ফি হিসাবে বকেয়া ১০৮ কোটি ৮৩ লাখ টাকা পরিশোধ এবং এয়ারটেলের ৫ মেগাহার্জ স্পেকট্রাম ফেরত দেওয়ার কোনোটিই এখন পর্যন্ত পূরণ করেনি ।

*

*

Related posts/