বিটিআরসির কারণে বিপুল বৈদেশিক মুদ্রা হারাবে দেশ : ভিএসপিএ

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আন্তর্জাতিক কল টার্মিনেশন রেট কমাতে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসির প্রস্তাব কার্যকর হলে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা আয় হারাবে দেশ। এতে বছরে অন্তত দুই হাজার কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা আয় কমবে বলে অভিযোগ করেছে ভিওআইপি সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন (ভিএসপিএ)।

সংগঠনটির অভিযোগ দেশকে বিপুল বৈদেশিক মুদ্রা থেকে বঞ্চিত করার আয়োজন করতে কমিশন সম্প্রতি কল টার্মিনেশন রেট ৩ সেন্ট থেকে কমিয়ে মাত্র দেড় সেন্ট করার জন্য মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

বিটিআরসির এ প্রস্তাব দেশের অর্থনীতির জন্য মারাত্বক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে বলে মনে করে ভিএসপিএ।

BTRC income-TechShohor

রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটি জানায়, “সন্দেহ নেই যে কল টার্মিনেশন রেট কমানোর পিছনে তাল দিচ্ছে বিটিআরসি। তারা শুধু কিছু আইজিডব্লিউকে লুটপাটে সহায়তা করছে তা নয়, নিজেরাও লুটপাটের মহোৎসবে জড়িত।”

প্রতিবেশী দেশগুলোর আন্তর্জাতিক কল টার্মিনেশন রেট তুলে ধরে ভিএসপিএ জানায়, শ্রীলঙ্কায় প্রতি মিনিটের টার্মিনেশন রেট ৯ সেন্ট। নেপালে তা সাড়ে ৯ সেন্ট, পাকিস্তানে ৮ দশমিক ৮ সেন্ট ও মালদ্বীপে ২৫ সেন্ট।

ভিওআইপি প্রোভাইডারদের সংগঠনটির মতে, পাকিস্তান সরকার এ খাত থেকে বছরে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে দু’বছর আগে কল টার্মিনেশন রেট বাড়িয়েছে। অধিকাংশ উন্নয়নশীল দেশ বৈদেশিক মুদ্রা আয় বাড়াতে এমন পদক্ষেপ নিয়েছে।

কিন্তু সেখানে বাংলাদেশে কল টার্মিনেশন রেট কমানো বিটিআরসির অত্যুৎসাহ ও অসৎ উদ্দেশ্য ছাড়া আর কিছুই নয় বলেও উল্লেখ করেন সংগঠনের নেতারা।

ভিএসপি বলছে, কমিশন এখন সম্পূর্ণরূপে সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে। এর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দেশের টাকা লুটপাট করা ছাড়া আর কিছুই করছে না। বিটিআরসিকে তারা দেশ ও সমাজের শত্রু বলেও উল্লেখ করে।

ভিওআইপি প্রোভাইডারদের মতে, তারা পৌনে ছয় লাখ টাকায় প্রতিটি লাইসেন্স নিয়েছেন। আর সব মিলে এখাতে সরকারকে ৬০ কোটি টাকা দিয়েছেন। কিন্তু এক বছরের অধিক সময় পার হলেও এখন পর্যন্ত অনেক ভিএসপিকে কমিশন অপারেশনে যেতে দিচ্ছে না বলে তাদের অভিযোগ।

Related posts

*

*

Top