বিটিআরসি চেয়ারম্যানের বিদেশ সফরে পিএম অফিসের না

অনন্য ইসলাম, টেক শহর প্রতিবেদক : বিটিআরসি চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি বোস চলতি মাসে দক্ষিণ কোরিয়া সফরে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এতে বাধ সেধেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। তার সর্বশেষ সফরের অনুমোদনের জন্য পাঠানো সার সংক্ষেপ গত মঙ্গলবার বাতিল করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

আগামী ১৩ থেকে ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি চেয়ারম্যানের দক্ষিণ কোরিয়া সফর করার কথা ছিল। বর্তমানে তিনি নাইজেরিয়া সফর করছেন। ১৩ অক্টোবর ঢাকায় ফিরে ওই দিনই তার কোরিয়া যাওয়ার কথা ছিল। এর আগে ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র সফর করেন তিনি। এরপর ৬ অক্টোবর নাইজেরিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হন সুনীল কান্তি বোস। চলতি মাসের শেষে আবার তার সুইজারল্যান্ড যাওয়ার কথা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ১১ বছরে এই প্রথমবারের মতো বিটিআরসির কোনো চেয়ারম্যানের বিদেশ সফরের ফাইল আটকে দিল সরকার। এক বছরে নয় বার বিভিন্ন দেশ সফর করে আসার পর এবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় বর্তমান চেয়ারম্যানের পরবর্তী সফর আটকে দিয়েছে।

জানা গেছে, চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে বিটিআরসির খরচে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী ও সচিবসহ ১৫ জনের দল নিয়ে বার্সেলোনায় যান সুনীল কান্তি। এপ্রিলে তিনি সফর করেন ভিয়েতনাম। এরপর জুলাইয়ে যান পোল্যান্ড এবং অস্ট্রিয়ায়। এর আগে দুবাইয়ে আইটিইউর সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি।

মাঝে থ্রি জির নিলামের সময়ে বেশ কিছুদিন বিদেশ যান নি তিনি। তবে ৮ সেপ্টেম্বর নিলাম শেষ করে চারদিনের মাথায় অপারেটরদের লাইসেন্স এবং অনাপত্তিপত্র (এনওসি) দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র যান ১৩ সেপ্টেম্বর। দু সপ্তাহেরও বেশি সময়ের এ সফরে তিনি স্পেকট্রাম ম্যানেজমেন্টের ওপর প্রশিক্ষণ নিতে গিয়েছিলেন। অথচ বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত এ প্রশিক্ষণে এর আগে সব সময় সহকারি পরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তারা যুক্তরাষ্ট্র গিয়েছিলেন। ২০০৮ সালে দাতা সংস্থাটির চুক্তি হওয়ার পর থেকে এটাই ছিল নিয়ম। মূলত ওই পর্যায়ের কর্মকর্তারাই স্পেকট্রাম ম্যানেজমেন্টের কাজ করে। সে কারণে তাদের মধ্য থেকে দুই বছর পরপর নতুনদের এ বিষয়ে প্রশিক্ষণে পাঠানো হতো।

বর্তমান চেয়ারম্যানের ঘনঘন বিদেশ সফর এবং প্রথমবারের মতো কোনো চেয়ারম্যানের সফর বাতিল করে দেওয়ার ঘটনা বিটিআরসিতে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দেয়।

Related posts

*

*

Top