Maintance

১৬ ডিসেম্বর চালু হচ্ছে ডটবাংলা

প্রকাশঃ ৩:২৯ অপরাহ্ন, অক্টোবর ১৮, ২০১৬ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৩:৪০ অপরাহ্ন, অক্টোবর ১৮, ২০১৬

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর আগামী ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশের ৪৫তম বিজয় দিবস থেকে দেশে চালু হচ্ছে ডটবাংলা ডোমেইন। প্রায় ৬ বছর নানা জটিলতার অবসান ঘটিয়ে চলতি মাসে ডটবাংলা চালুর চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়েছে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ডটবাংলা চালুর তারিখ জানিয়েছেন টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

তিনি বলেন, ডটবাংলা ডোমেইন চালু হলে সাইবার পরিসরে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলা ভাষার প্রবর্তন হবে। মানুষ বাংলাদেশকে তখন আরও ভালো করে চিনবে, বাংলা ভাষা সম্পর্কে জানবে।

ডটবাংলা1
ডটবাংলা চালুর জন্য সবার ঐক্লান্তিক প্রচেষ্টা ছিলো জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, দেশের সরকার প্রধান থেকে শুরু করে সবার প্রচেষ্টাতেই ডটবাংলা ডোমেইন বাংলাদেশ পেয়েছে।

এই ডটবাংলার জন্য আরও দুটি দেশ ইন্টারনেট করপোরেশন ফর অ্যাসাইন্ড নেইমস অ্যান্ড নাম্বারস বা আইক্যান এর কাছে আবেদন করেছিলো। কিন্তু বাংলাদেশ বাংলা ভাষাকে পেয়েছে অনেক রক্তের বিনিময়ে। তাই শেষ পর্যন্ত আইক্যান বাংলাদেশকে ডটবাংলা দিয়েছে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

কান্ট্রি কোড টপ-লেভেল এই ডোমেইন হিসেবে বাংলাদেশের জন্য ডটবাংলার বরাদ্দ থাকলেও ডোমেইন ম্যানেজার হিসেবে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেডকে (বিটিসিএল) অনুমোদন দিচ্ছিল না আইক্যান।

তবে শেষপর্যন্ত বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং ডোমেইন ম্যানেজার হিসেবে বিটিসিএলের নামে ডোমেইনটি বরাদ্দ করেছে।

ইতোমধ্যে বিটিসিএল ডটবাংলা ডোমেইনের জন্য প্রস্তাবিত একটি ফি নির্ধারণ করেছে। এক্ষেত্রে সাধারণ ডোমেইনের জন্য ৫০০ টাকায় এক বছর মেয়াদ। তবে বিশেষ কোনো ক্ষেত্রে বা নামের ক্ষেত্রে ডটবাংলার দাম হবে ১০ হাজার টাকা। যার মেয়াদ এক বছর।

এসব ডোমেইন নবায়নে ৫০০ টাকা করে নবায়ন ফির প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে মালিকানা পরিবর্তনের জন্য দেড় হাজার টাকা ফি নির্ধারণ করেছে বিটিসিএল।

ডটবাংলা চালু করার পর এর মেয়াদ শেষ হওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে জরিমানাসহ নবায়নের সময় দেওয়া হবে। তবে যদি কেউ ৩০ দিনের মধ্যে নবায়ন না করেন তবে ডোমেইনটি বাতিল করা হবে।

ডটবাংলা নিয়ে বিটিসিএলের এমন প্রস্তাব এখনো চূড়ান্ত আকার পায়নি। সামনের সপ্তাহে প্রস্তাবটি চূড়ান্ত হতে পারে।

তবে সার্ভিসটি দেওয়ার জন্য ইতোমধ্যে বিটিসিএল তাদের সার্ভার প্রস্তুত করেছে। সর্বশেষ হিসেবে সার্ভারটি এখন অটোমোশনের কাজ চলছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে।

২০১১ সালে ইন্টারন্যাশনালাইজড ডোমেইন নেইমে (আইডিএন) লেখার ভাষা হিসেবে বাংলা ভাষার আনুষ্ঠানিক অনুমোদন পায় বাংলাদেশ।

এর আগে ২০১০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সরকার আন্তর্জাতিক ডোমেইন হিসেবে ‘ডটবাংলা’ কার্যকর করতে আইক্যান এর কাছে আবেদন করেছিল। বাংলাদেশের আবেদনের পর সংস্থাটি বাংলা ভাষাকে মূল্যায়ন করে। এরপর ইন্টারনেট অ্যাসাইনড নাম্বারস অথোরিটির (আইএএনএ) অনুমোদন মেলে। এবং চলতি মাসেই এর চূড়ান্ত অনুমোদন পায় বাংলাদেশ।

জামান আশরাফ

*

*

Related posts/