সরকারি তথ্য সেবা টোল ফ্রি করার উদ্যোগ

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সরকারি সকল তথ্য সেবাকে টোল ফ্রি করার উদ্যোগ নিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

একটি নির্দিষ্ট নম্বরকে টোল ফ্রি করা হলে গ্রাহক তথ্য পেতে বিনা খরচায় ওই নম্বরে যোগাযোগ করে তথ্য জানতে পারবেন।

বর্তমানে পুলিশের জন্যে টোল ফ্রি সার্ভিস থাকলেও সেটি কেবল ল্যান্ডফোনের জন্য প্রযোগ্য। সেখানেও কয়েকবার নম্বরটি ৯৯৯ এবং ১০০ এর মধ্যে অদলবদল হওয়ায় তা আর কার্যকার নয়।

toll free call_techshohor

তবে নতুন উদ্যোগে মোবাইল বা ল্যান্ড ফোন যে কোনো ফোনের জন্য তথ্য সেবার নম্বরগুলোকে টোল ফ্রি করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

সেক্ষেত্রে পুলিশের সঙ্গে ফায়ার সার্ভিস, হাসপাতালসহ অন্যান্য স্বাস্থ্য খাত, টেলিযোগাযোগ এবং অন্যান্য সেবার জন্য টোল ফ্রি নম্বর চালুর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াসউদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, তারা টোল ফ্রি সার্ভিস নিয়ে কাজ করছেন। জনগনের সেবার জন্য এটিকে আরও উন্মুক্ত এবং জনবান্ধব করার চেষ্টা চলছে।

জানা গেছে, সম্প্রতি বিটিআরসি এ বিষয়ে বৈঠক করেছে। খুব তাড়াতাড়ি সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্যে সরকারের কাছে প্রস্তাব পাঠাবেন কমিশনের কর্মকর্তারা।

সূত্র জানিয়েছে, বতমানে যে পদ্ধতিতে কমিশন চিন্তা করছে তাতে প্রতিটি সেবা সংস্থার জন্য আলাদা আলাদা নম্বর থাকবে। তা ছাড়া পাঁচ ডিজিটের শটকোর্ডের মাধ্যমে এ সেবা চালুর ইচ্ছা নিয়ন্ত্রক সংস্থার।

সে ক্ষেত্রে স্ব-স্ব বিভাগ তাদের সার্ভিস চালু রাখবে এবং পুরো বিষয়টি তারাই মনিটর করবে।
তবে ভবিষ্যতে শুধু একটি নম্বর থেকে এ সেবা চালু করার ইচ্ছা রয়েছে কমিশনের।

বর্তমানে পুরো ইউরোপে ১১২ নম্বরে কল করে সকল সেবা পাওয়া যায়। পাকিস্তানে কেবল ১১৭ নম্বর থেকে সরকারি যে কোনো তথ্য সেবা পাওয়া যায়। আর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৯১১ নম্বরে বছরে ২৪ কোটি ফোন আসে বলে সম্প্রতি বিটিআরসির এক বৈঠকে তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। অন্যদিকে ভারতে বিভিন্ন সেবার জন্যে বিভিন্ন নম্বর ব্যবহার করা হয়।

সে ক্ষেত্রে একটি নম্বরে ডায়াল করার পর সেখান থেকে অন্যান্য সেবা সস্পর্কে জানতে আরো সাব মেনুতে প্রবেশ করতে হবে।

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর টুজি লাইসেন্স নবায়নের শর্তেও এ সেবা চালুর বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ফলে মোবাইল ফোনকেও এ সেবা কার্যক্রমের মধ্যে নিয়ে আসা কোনো সমস্যা নয় বলে সংশ্লিষ্টদের মত।

তবে সূত্র বলছে, মোবাইল ফোন থেকে কেউ ফোন করলে গ্রাহকের হয়ত খরচ হবে না। কিন্তু মোবাইল অপারেটরদের নেটওয়ার্কের ওপর যে চাপ পড়বে সেটিকে কি দিয়ে পোষানো হবে?
বর্তমানে মোবাইল ফোন অপারেটররা বিনামূল্যে সরকারি এসএমএস প্রচার করতে বাধ্য।

এর আগে গত ডিসেম্বরে বিটিআরসি বেসরকারি পর্যায়ে বাণিজ্যিক কার্যক্রমের জন্য টোল ফ্রি সার্ভিসের অনুমোদন দিয়েছে। যা দিয়ে স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়েও সেবা দেওয়া যাবে।

Related posts

*

*

Top