এবার বিক্রির তালিকায় ব্ল্যাকবেরি

টেক শহর ডেস্ক : শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারক ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোন ব্যবসায় খুব একটা সুবিধা করতে পারছে না। ক্রমাগত লোকসান এড়াতে এ ব্যবসা থেকে নিজেদের গুটিয়ে নেওয়ার চিন্তাভাবনা করছে তারা। এরই অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে বিক্রির আলোচনা শুরু করেছে কোম্পানিটি। কয়েকদিন আগে নকিয়াও হাল ছেড়ে দিয়ে মাইক্রোসফটের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে স্মার্টফোন ব্যবসা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কানাডিয়ান এ কোম্পানিটি আংশিক কিংবা পূর্ণাঙ্গরূপে বিক্রি হতে পারে। ব্ল্যাকবেরি কিনতে আগ্রহীর সংখ্যাও কম নয়। জায়ান্ট সব কোম্পানি ইতোমধ্যে আলোচনা শুরু করেছে। এর মধ্যে রয়েছে গুগল, সিসকো সিস্টেম এবং এসএপি। এমনকি আগ্রহীদের তালিকায় নাম উঠে এসেছে ইন্টেল, এলজি এবং স্যামসাংয়ের মতো প্রতিষ্ঠানেরও। অবশ্য এসব কোম্পানির কেউ এ বিষয়ে এখনও মুখ খোলেন নি।

blackberry-z10-Tech Shohor

গত মাসে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, সর্বশেষ প্রান্তিকে ১ বিলিয়ন ডলার লোকসানের পর ব্ল্যাকবেরির ব্যবসা গুটিয়ে ফেলা নিয়ে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে। বিশাল এ লোকসানের মূলে রয়েছে সর্বশেষ স্মার্টফোন জেড-১০ বিক্রি না হওয়া। এ কারণে সম্ভাব্য ক্রেতারাও কিছুটা সংশয়ে থাকায় সতর্কতার সঙ্গে এগুচ্ছে।

এরপরও ব্ল্যাকবেরির নিরাপদ সার্ভার নেটওয়ার্ক এবং বিভিন্ন পণ্যের প্যাটেন্ট ক্রেতাদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে বলে জানা গেছে। রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুসারে, এ পরিস্থিতিতে এখন আগ্রহী কোম্পানিগুলোর সঙ্গে দরকষাকষি চলছে। বাজার বিশ্লেষকদের মতে, কোম্পানির এসএমএস সিস্টেমের বাজারমূল্য ৩০০ থেকে ৪৫০ কোটি ডলার। প্যাটেন্টের দাম ২০০ থেকে ৩০০ কোটি ডলার। আর প্রতিষ্ঠানটিতে বিনিয়োগের পরিমাণ ৩১০ কোটি ডলার।

অব্যাহত ক্ষতি পোষাতে বেশ কিছু দিন থেকে বিক্রির আলোচনা শুরুর পর গত সপ্তাহে এটিকে ৪৭০ কোটি ডলারে প্রাথমিকভাবে ব্যক্তি খাতে ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তাব করে ব্ল্যাকবেরির সবচেয়ে বড় অংশীদার প্রতিষ্ঠান ফেয়ারফ্যাক্স ফাইন্যান্সিয়াল হোল্ডিংস। এজন্য আগ্রহী কৌশলগত ক্রেতাদের সম্ভাব্য দরপ্রস্তাব জমা দিতে বলেছে তারা। যদিও কোম্পানিটির সম্পদের মূল্য নিয়ে এখনও প্রশ্ন রয়েছে। অনেকেই বলছেন, আগামী ১৮ মাসে কোম্পানির পোর্টফোলিও ও লাইসেন্সিং চুক্তির মূল্যমান অর্ধেক কমে যেতে পারে।

– রয়টার্স অবলম্বনে আমিন রানা

ট্যাগ

Related posts

*

*

Top