গ্রাহক সেবার নীতিমালা অনুমোদন

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মোবাইল ফোন গ্রাহকদের সেবা নিশ্চিত করতে দীর্ঘদিন থেকে একটি নীতিমালা তৈরির কাজ করেছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। অবশেষে বৃহস্পতিবার এ নীতিমালা অনুমোদন করা হয়েছে। কয়েক বছর ধরে গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতে এটি চূড়ান্ত করেছে কমিশন।

বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন আহমেদ টেক শহরকে বলেন, কমিশনের নিয়মিত সভায় নীতিমালাটি অনুমোদন করা হয়েছে। শিগগির এটি জারি করা হবে।

জানা গেছে, নীতিমালায় ১৩টি কেপিআই (কি পারফরম্যান্স ইন্ডিকেটর) নির্ধারণ করেছে বিটিআরসি। গ্রাহকের হয়রানি ঠেকাতে এ নীতিমালা তৈরি ও প্রয়োগে অনেক দিন থেকে চেষ্টা করছে কমিশন। তবে নানা কারণে তা এতদিন বাধাগ্রস্ত হয়েছে।

mobile operator_telecom_companies_techshohor

কেপিআইতে গ্রাহকের ভয়েস কলের অন্তত ৭৫ শতাংশ সফল হওয়াকে নূন্যতম সফলতার মাপকাঠি হিসেবে রাখা হয়েছে। তা ছাড়া কোনো অপারেটরের কনজেশনের কি অবস্থা, ঘন ঘন কল ড্রপ হয় কি না, ভয়েস কোয়ালিটির অবস্থা কি সবই থাকবে এ ইন্ডিকেটরে।

তা ছাড়া ডাটা ব্যবহারের ক্ষেত্রে ঘোষিত স্পিডের মধ্যে অন্তত ৮০ শতাংশ নিশ্চিত করতে বলেছে বিটিআরসি।

অন্যান্য প্যারামিটারের মধ্যে এসএমএস-এর সফলতা, গ্রাহক সেবার মান, গ্রাহকের অভিযোগ জানানোর সুযোগ ঠিকঠাক আছে কিনা সেটাও গুরুত্ব পেয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এর আগে বিটিআরসি বিনা খরনে অভিযোগ জানানোর ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দিলেও অপারেটররা কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে। আগে থেকে ‘১২১’ কলকে ঠিক রেখে নতুন করে চালু করে ‘১৫৮’, যেখানে বিনা খরচে কথা বলা যায়। কিন্তু ‘১৫৮’ এর কথা তেমন প্রচার করা হয়নি। ফলে অনেকেই এটির কথা জানেন না। অন্যদিকে আবার ‘১২১’ তে ফোন করা হলে গ্রাহকের অহেতুক অনেক সময় নষ্ট করার অভিযোগ রয়েছে অপারেটরদের বিরুদ্ধে। এ বিষয়টিও নিশ্চিত করতে বলা হচ্ছে নীতিমালায়।

তবে নীতিমালা পরিপালন বিষয়ে বিটিআরসির কর্মকর্তারাই বলছেন, তারা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না এর কতোটা অপারেটররা পূরণ করতে পারবেন। তাদের একজন টেক শহরকে বলেন, টেলিটকে নিয়ে তাদের সবচেয়ে বেশি দুঃশ্চিন্তা। কারণ অন্য বেসরকারি অপারেটরগুলো এর অনেকটা বাস্তবায়ন করতে পারলেও টেলিটকের এ ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে বলে তাদের ধারণা।

Related posts

*

*

Top